Hoop PlusBollywood

‘তুমি বাবার ভক্ত, আমি বাবার রক্ত’, কুমার শানুকে শুনিয়ে দেন কিশোর পুত্র অমিত কুমার

সর্বভারতীয় সিঙ্গিং রিয়েলিটি শো ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এর মঞ্চ থেকে অমিত কুমার (Amit Kumar)-কে ঘিরে শুরু হয়েছিল বিতর্ক। কিংবদন্তী গায়ক কিশোর কুমার (Kishor Kumar)-এর পুত্র সরাসরি জানিয়েছিলেন, প্রতিযোগীদের গান তাঁর পছন্দ না হলেও টাকার জন্য তাঁকে প্রশংসা করতে হয়েছে। সম্প্রতি অমিতের নতুন গান ‘জিন্দা হুঁ ম্যায়’ ইউটিউবে রিলিজ করেছে। গানটি রিলিজ করতেই তা ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Amit Kumar (@amit.kumar.ganguly)

কবর বা কফিনকে মানুষ মৃত্যুর প্রতীক বলে মনে করেন। কিন্তু অমিত তাকে জীবনের প্রতীকে রূপান্তরিত করেছেন। ‘পন্ছী হুঁ ম্যায়’ কথার সঙ্গে মিলিয়ে উড়ন্ত পাখিকে ধরেছেন অমিত। কারণ তিনিও পাখির মতো স্বাধীন জীবন পছন্দ করেন। তিনি মনে করেন তাঁর সমালোচকের সংখ্যা এক থেকে দুই শতাংশ। কিন্তু তাঁর অনুরাগীর সংখ্যা অন্তত আটানব্বই শতাংশ। সব প্রজন্মের অনুরাগী আছেন তাঁদের মধ্যে। ইন্সটাগ্রামে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা প্রায় সতের হাজার। ফেসবুকে ছয় লক্ষ। টুইটারেও অগণিত ফলোয়ার্স। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পছন্দ করেন অমিত। তিনি নিজে কাউকে কটাক্ষ করেন না। কারো কটাক্ষকে পাত্তা দেন না।

ইউটিউবে তাঁর অফিশিয়াল চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার এক লক্ষ সত্তর জন। দুই লক্ষ সাবস্ক্রাইবার হলেই বাংলা গান আপলোড করা হবে তাঁর চ্যানেলে। থাকবে তাঁর গাওয়া পুজোর সিঙ্গলস, রবীন্দ্রনাথের গান। অমিত এখনও বুঝে উঠতে পারেন না রিয়েলিটি শোয়ের বাঁধা গত থেকে কেন বেরোতে পারছেন না নির্মাতারা! অথচ তিনি ও অন্নু কাপুর মিলে নিয়ে এসেছিলেন রিয়েলিটি শোয়ের কনসেপ্ট। একসময় ভালো ভালো শিল্পী উঠে এসেছেন রিয়েলিটি শো থেকে। তবে অমিত রিয়েলিটি শো-কে নেতিবাচক মনে করেন না। তাঁর মতে, সঠিক রূপে শিল্পী হতে চাইলে নিজের গানের দিকে মন দেওয়া উচিত। সময় বদলে গিয়েছে। ফুরিয়ে গিয়েছে প্লে-ব‍্যাক করার ভাবনা। নিজেকে প্রমাণ করার বহু মাধ্যম রয়েছে। নতুন প্রজন্মকে সেই পথে এগোতে হবে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Amit Kumar (@amit.kumar.ganguly)

অমিত মনে করেন, বড় প্রযোজনা সংস্থা বা চ্যানেল কর্তৃপক্ষ সেরা শিল্পীদের নিজের হাতের মুঠোয় রেখে দিতে চায়। জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর তাঁদের নিজেদের মতো করে এগোতে দেওয়া হয় না। পরিশ্রম, ভাগ্য ও চেষ্টা একজন মানুষকে শিল্পী করে তুলতে পারে বলে মনে করেন অমিত। একসময় কিশোর কুমার ও অমিত কুমারের নাম একই পুরস্কারের মনোনয়ন পেলেও অমিত পুরস্কৃত হয়েছেন। তাই নেপোটিজমে বিশ্বাস করেন না তিনি। তবে এখন তিনি নিজের মতো করে স্বাধীন ভাবে কাজ করতে চান। তাঁর ও কিশোরের গাওয়া জনপ্রিয় হিন্দি গানের কভার সং গাইছেন অমিত। এমনকি গাইছেন ইংরাজি গানও।

অমিত নিজেকে কিশোরের উত্তরাধিকারী মনে করেন। একসময় কুমার শানু (Kumar Sanu)-কে রিয়েলিটি শোয়ের মঞ্চে অমিত বলেছিলেন, শানু কিশোরের ভক্ত, তিনি কিশোরের রক্ত। তবে বাবার সঙ্গে তুলনা টানতে আপত্তি নেই অমিতের। পিছন ফিরে অতীত দেখতে পছন্দ করেন না অমিত। নিজের সঙ্গীত জীবন নিয়েও কোনো অসন্তোষ নেই। মাথা ঘামান না ভবিষ্যত নিয়েও। তিনি মুহুর্ত যাপন করতে ভালোবাসেন। সত্তর বছর বয়সে এসে তিনি নতুন করে কিছু প্রমাণ করতে চান না। শুধু স্বাধীন ভাবে কাজ করতে চান। ফিল্মে প্লে-ব‍্যাক করার ইচ্ছা নেই। নিজের অনুরাগীদের ভরিয়ে রাখতে চান সঙ্গীতের মূর্চ্ছনায়।

Related Articles

Back to top button