Bengali SerialHoop Plus

Anurager Chhoya: সূর্যকে বিয়ে করায় দীপার জীবনে অপেক্ষা করছে কোন নতুন বিপদ!

অনুরাগের ছোঁয়া নামটি শুনলেই এখন দর্শক একরাশ মুগ্ধতা অনুভব করেন। ষড়যন্ত্র, খাবারে বিষ মিশিয়ে দেওয়া কিংবা কুটকাচালি বাইরে গিয়েও এক অন্যরকমের ধারাবাহিকের স্বাদে মেতেছেন দর্শকেরা। দর্শকদের ওপর এই ধারাবাহিকটি প্রভাব এতটাই পড়তে শুরু করেছে যে মেয়েরা এখন সূর্যের মতো স্বামী চাইছে। যেখানে প্রথম দিন থেকে অন্যান্য জুটির মধ্যে মারকাটারি ঝগড়া, একে অপরের প্রতি বিদ্রূপের বন্যা থাকে সেখানে এই জুটির প্রথম দিন থেকে পরস্পরের পাশে থেকেছে। একদিনের জন্যও দীপার বিরুদ্ধে কোনো অপমানজনক কথা বলতে দেখা যায়নি সূর্যকে। দীপা কে সে দেবীর মত শ্রদ্ধা করে।

গত শুক্রবার বিয়ে হয় সূর্য এবং দীপার। অন্যান্য ধারাবাহিকের মতো এই বিয়ে কে এক সপ্তাহ ধরে চলতে দেয়নি ধারাবাহিকের নির্মাতারা। সূর্য এবং দিবার বিয়ে আগাগোড়াই ছিল একরাশ স্নিগ্ধতা এবং ভালোবাসায় ভরা। বহুদিন পর দর্শক বাংলা ধারাবাহিকের ঝঞ্ঝাহীন বিয়ে দেখতে পেল। আবার সেই পর্বের শেষে দেখা যায় উর্মির জন্মদিনের পার্টিতে লাবণ্য সেনগুপ্তর সামনে দীপাকে বিয়ে করে হাজির হয়েছে সূর্য। এই চমক দিয়েই শেষ হয় শুক্রবারের পর্ব। আগামী পর্বে কি ঘটতে চলেছে তা নিয়ে দর্শকদের উত্তেজনা আর বাঁধ মানতে চাইছে না। জলসার ফেসবুক পেজে তারা জোরালো দাবি জানান যে এই ধারাবাহিকটির প্রতিদিন সম্প্রচার চাই তাদের।

রবিবার স্টার জলসার ফেসবুক পেজে প্রকাশিত হলো ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো। যে প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে সূর্য এবং দীপা বিয়ের পর সেনগুপ্ত বাড়িতে গিয়ে উঠেছে। সেখানে দীপা এবং সূর্য কালরাত্রি। সেখানে দীপাকে বলতে শোনা যাচ্ছে, “আজ আপনি আমার জন্য আপনার পরিবারের থেকে দূরে।” কিন্তু সূর্য যে সবার থেকে আলাদা তাই সে বলে ওঠে,“ যেখানে আমার স্ত্রীর কোন জায়গা নেই সেখানে আমিও থাকতে পারিনা। তোমায় যে আমি ভালবাসি দীপা!” এর পরেই সূর্য দীপার মুখ দেখতে চায় কিন্তু দীপা তাকে কালরাত্রির অজুহাতে বাধা দেয়। দীপা চলতে গেলে কাছে পা কেটে যেতে পারে এই আশঙ্কায় দীপার পায়ে হাত দিয়ে বিপাকে আটকে দেয় সূর্য। সূর্য দীপার পায়ে হাত দিয়েছে তাই সে মরমে মরতে থাকে। সূর্য আশ্বাস দেয় দীপাকে যে দীপার জীবনে আর কোন আঘাত আসতে দেবে না সূর্য।

অন্যদিকে ছেলের কাছে এই ধাক্কা খেয়ে তো রেগে অগ্নিশর্মা লাবণ্য সেনগুপ্ত। সে সোচ্চারে ঘোষণা করে,“ আঘাতে আঘাতে আমি দীপার জীবন শেষ করে দেবো।” উল্টোদিকে সূর্যের দিদি এবং লাবণ্য সেনগুপ্তর বড় মেয়ে জানান যে সূর্যের জীবনে দীপা যে জায়গাটা জুড়ে রয়েছে তা কিছুতেই লাবণ্য সেনগুপ্ত অস্বীকার করতে পারে না।

নতুন প্রোমো দেখে মুগ্ধ হবার পাশাপাশি দীপার জন্য আশঙ্কিত দর্শকেরা। সূর্য এবং দীপার নতুন জীবন কেমন হবে তা নিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন দর্শকেরা। একজন অনুরাগী কমেন্টে লেখেন,“এতো ভালো গল্প আগে কোনো সিরিয়ালে ছিল বলে মনে হয় না। উরন্ত সিঁদুর নেই, হঠাৎ বিয়ে নয়। দুজনের সম্মতিতে বিয়ে। এতো ভালো বন্ডিং। দারুন দারুন।” অন্য একজন লেখেন,“দারুন, দারুণ, ভীষণ দারুণ। এই প্রথম কোনো নায়ক সাহসী পদক্ষেপ নিলো। বউকে নিয়ে আলাদা থাকা, সিরিয়ালে তো সাধারণত এটা দেখানো হয়না। সেখানে তো বউকে যতই লাথিঝাটা মারুক, জয়েন্ট ফ্যামিলি তে মেরুদণ্ডহীনের মতো থেকে যেতো। এই প্রথম মেরুদণ্ড আছে এরকম নায়ক দেখলাম যে অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছে, তার বউকে পরিপূর্ণ সম্মান দিয়েছে। আমি জাস্ট ফ্যান হয়ে গেছি এই দুজনের।”