Bengali SerialHoop Plus

Godhuli Alap: মাঝবয়সী অরিন্দমের সঙ্গে নোলকের ফুলশয্যা, মনের মিল হবে কি!

সম্প্রতি স্টার জলসার পর্দায় শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক গোধূলি আলাপ। বর্ষীয়ান অভিনেতা কৌশিক সেন কে এই ধারাবাহিকে নায়কের চরিত্রে দেখা যাচ্ছে। এই ধারাবাহিকের নায়িকা নবাগতা সোমু সরকার। ধারাবাহিকটি অন্যান্য ধারাবাহিকের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন ধারার হবে বলেই দাবি করেছিলেন ধারাবাহিকটি প্রযোজক রাজ চক্রবর্তী। একই গল্প দেখতে দেখতে দর্শক এখন ক্লান্ত। তাই এই অসমবয়সী প্রেমের কাহিনী দর্শকদের পছন্দ হবে এ বিশ্বাস তার আছে। তিনি এও দাবি করেন যে ধারাবাহিকটি টিআরপি চার্টে প্রথম পাঁচে স্থান করে নেবে। ধারাবাহিকটির চিত্রনাট্য লিখছেন হিন্দি সিরিয়ালের বিখ্যাত চিত্রনাট্যকার শোয়েতা ভরদ্বাজ।

গ্রামের সরল মেয়ে নোলকের সঙ্গে ভাগ্যের পরিহাসে গাঁটছড়ায় বাঁধা করেন মাঝবয়সী অ্যাডভোকেট অরিন্দম। তাদের এই সম্পর্ক কি সমাজ মেনে নেবে? এই কাহিনী নিয়ে সিরিয়ালটি শুরু হয়। গতকাল সিরিয়ালটির নতুন প্রোমো প্রকাশ্যে আসে। অরিন্দমকে বিয়ে করে অরিন্দমের বাড়িতে গিয়ে উঠেছে। প্রোমো দেখে বোঝাই যাচ্ছে যে সেইদিন অরিন্দম এবং নোলকের ফুলশয্যা। সেই প্রোমোতে নোলক কে ফুলশয্যার ঘর ওলট পালট করে দিতে দেখা যাচ্ছে। অরিন্দম খাবার নিয়ে কাছে আসতে গেলে নোলক মুখোশ পরে ভয় দেখাতে যায়। নোলক স্পষ্ট জানিয়ে দেয় যে অরিন্দম কাছে এলেই সে অরিন্দমের ঘাড় মটকে দেবে। কিন্তু অরিন্দমের পায় একটি গোলাপের কাঁটা ফুটে যায়।

আবার পরক্ষনেই অরিন্দম নোলককে লাল বাতাসাও দেয়। নোলক স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, কি ভেবেছেন লাল বাতাসা দিলে আমি তোমার সঙ্গে সারা জীবন থাকবো?” তখনই অরিন্দম নোলককে ধমক দিয়ে চুপ করিয়ে দেয়। অরিন্দম বলে ওঠে,“ এখন আইনত তুমি আমার স্ত্রী।আমি সারা জীবন তোমার পাশে থাকব।” অরিন্দমের মনের অন্তরালে থাকা অন্য মানুষটিকে কি চিনতে পারবে নোলক? চিনতে না পারলেও অরিন্দম এর জন্য যে আস্তে আস্তে ভালোবাসা তৈরি হচ্ছে নোলকের মনে তা নোলকের স্বীকারোক্তি দেখেই স্পষ্ট ধারণা করতে পেরেছেন দর্শক।

প্রথমদিকে ধারাবাহিকটিকে নিয়ে যে ট্রোলের ঝড় বয়ে গেছিল সেই ঝড় এখন অনেকটাই নিস্তরঙ্গ। কয়েকটি পর্ব সম্প্রচার হওয়ার পর ধারাবাহিকটি আস্তে আস্তে ভাল লাগতে শুরু করেছে দর্শকদের। একজন কমেন্টে লেখেন,“এই সিরিয়াল দেখে নিজের জীবনের কিছু মিল পেয়ে যাচ্ছি বয়সের মিল হলে যে বিয়ে টিকে যায় একটু বয়স বেশী বড় হলে সম্পর্ক টা খুব সুন্দর হয় সেটা নিজের জীবন দিয়ে বুঝতে পারছি খুব সুন্দর মন ছুয়ে যায় অনেকে ধন্যবাদ দাদা এতো সুন্দর একটা সিরিয়াল তৈরি করার জন্য।”