ভাতের সঙ্গে খাওয়ার জন্য গোটা লইট্টা রসা রেসিপি

লইট্টা মাছের ঝুরি আমরা অনেকেই খেয়ে থাকি৷ কিন্তু আমরা প্রত্যেকেই হয়তো জানি না যে লইট্টা মাছ দিয়ে অসাধারণ রসা বানানো যায়। লইট্টা মাছ খুব উপকারী একটি মাছ। লইট্টা মাছের মধ্যে থাকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড। এটি মানুষের শরীরের রক্তনালীগুলোকে পরিষ্কার করে হার্ট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়, হার্টকে সুস্থ রাখার জন্য খেতে পারেন। তবে খুব বেশি পেঁয়াজ, রসুন দিয়ে রান্না করলেই মাছের গুণাগুণ নষ্ট হয়ে যায়। যারা আর্থারাইটিস আক্রান্ত তাদের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ এই মাছ।

এই মাছের তেল দারুন পেইন কিলার হিসেবে কাজ করে। এছাড়া যাদের কোনো সমস্যা আছে বা কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। লইট্টা মাছের মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম। নারীদের মাসিক চলাকালীন ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা যায়, তারা সেইসময়ের লইট্টা মাছ খেতে পারেন। বর্তমানে মুড সুইং এর সমস্যা অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে, লইট্টা মাছ খেলে এই সমস্যা অনেকটাই কমে যায়। লইট্টা মাছ হিমোগ্লোবিন তৈরি করতে সাহায্য করে। শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে, শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা রয়েছে এই মাছের মধ্যে। যারা ইনসোমনিয়ায় ভুগছেন তারা লইট্টা মাছ খেতে পারেন। দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে এই মাছ।

মাছের মধ্যে রয়েছে এত উপকারিতা চলুন এই মাছ দিয়েই আজকের রান্না করা যাক লইট্টা মাছের রসা। জেনে নিন রেসিপি

উপকরণ -»
এক কিলো লইট্টা মাছ
দুটো বড় আকারের পেঁয়াজ
আদা বাটা ১ টেবিল চামচ
রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ
লঙ্কা বাটা স্বাদমতো
নুন মিষ্টি স্বাদমতো
হলুদ গুঁড়ো ১ চা চামচ
লঙ্কা গুঁড়ো স্বাদমতো
ধনেপাতা বাটা ১ কাপ
পুদিনাপাতা বাটা ১ কাপ
লেবুর রস ৩ টেবিল চামচ
গোলমরিচ গুঁড়ো ১ চা চামচ
কাঁচা লঙ্কা স্বাদমতো
সরষের তেল ১ কাপ

প্রণালী -»
ধাপ – ১ -»
মাছ গুলোকে ভালো করে ধুয়ে নিয়ে মাথা বাদ দিয়ে গোটা মাছ গুলির মধ্যে সামান্য পেঁয়াজের রস, সামান্য আদা এবং রসুনের রস, সামান্য নুন, হলুদ, লঙ্কাগুঁড়ো সামান্য পুদিনা পাতা ও ধনেপাতার রস লেবুর রস গোলমরিচ মাখিয়ে রেখে দিতে হবে। বেশ দু’ঘণ্টা রেখে দেওয়ার পরে কড়াইতে সরষের তেল গরম করে মাছগুলোকে একটু আটা মাখিয়ে সামান্য ভেজে তুলে রাখতে হবে।

ধাপ-২ -»
এরপর কড়াইতে সমপরিমাণ সরষের তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, হলুদ গুঁড়ো, লঙ্কাগুঁড়ো, ধনেপাতা বাটা, পুদিনাপাতা বাটা দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে। এরপর ভেজে রাখা মাছ গুলো দিয়ে সামান্য গরম জল দিয়ে নুন মিষ্টি স্বাদমতো দিয়ে চাপা দিয়ে রাখতে হবে ১০ মিনিটের মত। ১০ মিনিট পরে চাপা খুলে ওপরে রাখা কাঁচালঙ্কা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।