Hoop Food

Veg Recipe: ভাতের সঙ্গে খাওয়ার জন্য ‘নিরামিষ পটল পাতুরি’ রেসিপি

গরমকালে পটল খাওয়া ভীষণ স্বাস্থ্যকর। পটল পিত্তনাশ করে। বিশেষ করে যাদের শরীরে অতিরিক্ত গরমে অতিরিক্ত ঘাম হয়, তারা কিন্তু সহজেই পটল খেতে পারেন। পটল খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ উপকারী। বিশেষ করে বাচ্চা থেকে বড় প্রত্যেকেই এই গরমে পটল দিয়ে বানিয়ে ফেলতে পারেন নানান রেসিপি। খুব সহজেই এই অসাধারণ রান্না গুলি করে ফেলতে পারেন। পটলের সাথে এই রান্নার আর যে উপকরণ দেওয়া হয়েছে, সেগুলো কিন্তু আপনার শরীরের জন্য ভীষণ ভালো। যেমন নারকেল। নারকেল চুল ভালো করতে সাহায্য করে, ত্বককে সুন্দর করে। নারকেল এছাড়া রয়েছে পোস্ত বাটা,যা পেট ঠান্ডা করে। তাই আর দেরি না করে চটজলদি আমাদের Hoophaap এর পাতায় দেখে ফেলুন অসাধারণ ‘নিরামিষ পটল পাতুরি’ রেসিপি।

উপকরণ –
ছোট ছোট পটল
পোস্ত বাটা ৩ টেবিল চামচ
সরষে বাটা ৪ টেবিল-চামচ
নারকেল বাটা ৩ টেবিল চামচ
কোরানো নারকেল টেবিল-চামচ
সরষের তেল ৫ টেবিল চামচ
কাঁচা লঙ্কা বাটা
হলুদ গুঁড়া ২ টেবিল চামচ
নুন, মিষ্টি স্বাদমতো
ধনেপাতা কুচি স্বাদমতো

প্রণালী – প্রথমে একটি স্টিলের টিফিন বক্সকে খুব ভালো করে তেল মাখিয়ে রাখতে হবে। তারপর একটি আলাদা পাত্রে উপরে বলা সমস্ত উপকরণকে খুব ভালো করে হাতের সাহায্যে চটকে চটকে মেখে নিতে হবে। পটলকে লম্বা লম্বা করে কেটে বীজ বার করে নিতে হবে। পটল সামান্য গরম জলে ভাপিয়ে নিতে পারেন। এরপর এই মিশ্রণটিকে টিফিন বক্সের মধ্যে রেখে দিতে হবে। টিফিন বক্স বন্ধ করে দিতে হবে। একটি বড় পাত্রে জল গরম করতে হবে। তার মধ্যে স্ট্যান্ড বসাতে হবে, তার ওপরে টিফিন বক্স পুরে দিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, যেন কোনো ভাবেই টিফিন বক্সের ভেতরে জল ঢুকে না যায়, তারপরে ওপরে চাপা দিয়ে দিতে হবে। এরপর ১০ মিনিটের জন্য এটি এইভাবেই রেখে দিতে হবে। এরপর টিফিন বক্স বার করে ভালো করে প্লেটের মধ্যে ঢেলে ওপরে সামান্য ধনে পাতা কুচি আর গোটা লঙ্কা দিয়ে সাজিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ‘নিরামিষ পটল পাতুরি’৷