Hoop PlusBengali Serial

Mahapith Tarapith: দীর্ঘদিন পর টেলিভিশনের পর্দায় বর্ষীয়ান অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়

অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় একটা সময় দাপিয়ে বাংলা সিনেমা করে গিয়েছেন। নেগেটিভ চরিত্রের জন্য বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় ছিলেন অসামান্য। আজকাল তেমনভাবে তাকে দেখা যায় না। বড় পর্দায় তাকে শেষ দেখা যায় পাভেলের ‘অসুর’ ছবিতে। এবারে, একেবারে পজিটিভ চরিত্রে আসতে চলেছেন তিনি। থাকছেন ভক্তিমূলক গল্পে। হ্যাঁ, এই প্রবীণ তারকাকে দেখা যাবে ছোট পর্দায় সম্প্রচারিত ‘মহাপীঠ তারাপীঠ’ (Mahapith Tarapith) ধারাবাহিকে। প্রসঙ্গত, সদ্য বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় এক সংবাদপত্রে নিজের পছন্দের দুটি ধারাবাহিকের নাম বলেন, যার টিআরপি অন্যান্য ধারাবাহিকের থেকে কম, আর সেই ধারাবাহিকের একটিতে তিনি কাজ করছেন অর্থাৎ মহাপীঠ তারাপীঠ’ এবং অন্যটি হল ‘আয় তবে সহচরী’।

আরো পড়ুন -   পরকীয়ায় দাম্পত্য জীবনে বিবাদ, এই মানুষটির কোলে মাথা রেখে একটু শান্তি চাইছেন কাঞ্চন

স্টার জলসার বেশ জনপ্রিয় ধারাবাহিক হল ‘মহাপীঠ তারাপীঠ’। দেখতে দেখতে প্রায় ৭০০ পর্ব পার করে ফেলেছে। সব্যসাচী চৌধুরীর অসামান্য অভিনয় দর্শকদের মুগ্ধ করে রেখেছে। এছাড়াও, তার ব্যাক্তিগত জীবনের অপরিমেয় লড়াইয়ের কাহিনী সকলের জানা, সেই জন্যেই সকলের সব্যসাচীর উপর এক আলাদা সফট কর্নার রয়েছে। ধারাবাহিকে সব্যসাচী ছাড়াও মা তারার ভূমিকায় আছেন নবনীতা দাস।

সম্প্রতি, কাহিনীতে দেখানো হবে যে বামাক্ষ্যাপা অনুভব করবে তাঁর এক অন্ধভক্ত খুব কষ্ট পাচ্ছেন। সেই ভক্তের নাম বিষ্ণু দাস। এই ভূমিকাতেই অভিনয় করছেন বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় ( Biplab Chatterjee) । এখানে তিনি হত দরিদ্র কীর্তনীয়া। তার ঠাঁই হচ্ছে না কোনও দলে। অভাবের সংসার তার। এরমধ্যে রয়েছে তার এক অনাথ নাতনি। সেই নাতনির দায়িত্ব তাঁর উপরই। নাতনিকে সঠিক পাত্রের হাতে তুলে দেবেন বিষ্ণদাস, কিন্তু, অভাবের সংসারে পাত্রের অভাব। সেইসময় তার গ্রামে এসে উপস্থিত হন স্বয়ং বামদেব। এরপর!

আরো পড়ুন -   মনের মানুষ খুঁজে পেতে চাইছেন জুন আন্টি, তারও নজর রোহিত সেনের দিকে!

কাহিনীর নতুন মোড় দেখার অপেক্ষায় দর্শকরা। আগামী ৭ ও ৮ ই ডিসেম্বর দেখা যাবে এই কাহিনীর নতুন পর্ব। ভক্তের জন্য একজন গুরু কি কি করতে পারে সেই ঘটনার দেখার লোভে রয়েছেন বাংলার দর্শকরা। সুতরাং চোখ রাখুন রাত ১০ টার স্লটে। আপাতত এমন পজিটিভ চরিত্রে অভিনয় করে খুবই খুশি বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়। তার অভিমানী শব্দ আজও বলে, “পরিচালক বন্ধুদের আমায় কেবল খলনায়ক হিসেবেই পছন্দ। ফলে, ওই এক ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে করতে আমিও ক্লান্ত। অপেক্ষায় থাকি, কখন ভদ্রলোকের চরিত্রে আমায় ডাকা হবে। আমি সেখানে অভিনয়ের সুযোগ পাব।”

আরো পড়ুন -   সুশান্তের সিনেমায় অভিনয় করবেন অবিকল তারই মতো দেখতে এই যুবক

Related Articles

Back to top button