ধেয়ে আসছে সাইক্লোন ‘তাউকতাই’, আছড়ে পড়বে কোন এলাকায়! রইল আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস

গত দুই দিনে বৃষ্টির ফলে চলতি বছরে চলা দাবদাহ থেকে মুক্তি পাচ্ছে বাংলার মানুষ। তবে গতবছর ঠিক এই সময়ে আমফান এসে সমস্ত কিছু তছনছ করে গেছিল। তবে এই বছরের ফের হাওয়া দপ্তর আরেকটি ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছে। আগামী দিন পাঁচেকের মধ্যে বাংলায় ও উড়িষ্যার এই সাইক্লোন পৌঁছে যেতে পারে। এই ধরনের ঝড় হলে আরব সাগরে সমুদ্রের ঢেউ অনেকটা বৃদ্ধি পাবে। সেক্ষেত্রে সেখানে বোট না নৌকা চলাচল বন্ধ করা হবে।

গতকালের আবহাওয়া দপ্তর পূর্বাভাস দিয়েছিল যে এখন চলতি সপ্তাহে পরপর বেশ কয়েকটি রাজ্যের একাধিক জেলায় বৃষ্টিপাত হবে। তাদের কথামতো বজ্রপাত ও ঝড়বৃষ্টি হয়। কলকাতা শহরের পাশাপাশি আজ দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমান, মালদহ ও দুই দিনাজপুরে ঝড় বৃষ্টি হয়। এছাড়া কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু ইত্যাদি জায়গায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এরপর জানা যাচ্ছে আগামী ১৬ মে আরব সাগরে একটি তুফান তৈরি হবে যা ঝড় হিসেবে ভারত ভূখণ্ডে প্রবেশ করবে। এই ঝড়ের নাম দেওয়া হয়েছে ‘তাউকতাই’। এই নামটি দিয়েছে মায়ানমার।

ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কিত সর্তকতা জানাতে গিয়ে গতকাল হাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব আরব সাগরের মধ্যে নিম্নচাপ ঘনীভূত হচ্ছে। আগামী ১৪ মে এরমধ্যে এই নিম্নচাপ তৈরি হয়ে যাবে। তারপর সেটি এগিয়ে যাবে উত্তর-পশ্চিমে দিক। আর সেটি ঝড় আকারে আঘাত হানতে পারে গোয়া এবং মহারাষ্ট্র উপকূলে। সেখানে ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিবেগে অব্দি ঝড় হতে পারে।