Hoop FitnessHoop Life

Lifestyle: প্লাস্টিকের পাত্রে গরম খাবার রেখে খাচ্ছেন! কি বিপদ হতে পারে জানেন?

আপনি কি কখনো প্লাস্টিক খেয়েছেন? প্রশ্নটা কিছুটা অদ্ভুত হলেও এটাই আসলে ঘটে থাকে। না বুঝেই নানান খাবারের সঙ্গে কখনও না কখনও আপনি খেয়েই ফেলেছেন প্লাস্টিক। অস্ট্রেলিয়ার নিউকাসেল বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা পরিচালিত এক সমীক্ষায় দেখা যায়, প্রতি সপ্তাহেই অধিকাংশ মানুষই সামান্য পরিমাণে প্লাস্টিক খেয়েই ফেলেন। এটি সবচেয়ে বেশি শরীরে প্রবেশ করে গরম পানীয়ের সঙ্গে বা গরম খাবারের সঙ্গে এমনকি ঠান্ডা পানীয়ের সঙ্গেও। প্লাস্টিক যে শরীরের পক্ষে কতটা ক্ষতিকারক তা সকলেই জানেন। তাহলে ভাবুন তো প্রতি সপ্তাহে কত পরিমাণ প্লাস্টিক আপনার শরীরে গিয়ে কত ক্ষতি করছে!

প্লাস্টিকের পাত্রে খাবার খেলে প্লাস্টিকের কণা শরীরে প্রবেশ করে একথা সকলেই জানেন। কিন্তু সম্প্রতি গবেষণায় উঠে এসেছে তার থেকেও এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বিজ্ঞানীরা বলেছেন প্লাস্টিকের পাত্রে খাবার খেলে নষ্ট হতে পারে হরমোনের ভারসাম্য।

আমেরিকার কয়েকজন বিশিষ্ট বিজ্ঞানীগণ গবেষণার মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন যে প্লাস্টিকের কণা যে শুধুমাত্র শরীরে গিয়ে শরীরের স্বাভাবিক ক্রিয়া শ্লথ করে তাই নয়, এর আরও অনেক ক্ষতিকারক দিকও রয়েছে যা এতদিন সামনে আসেনি। বিশেষজ্ঞ সোনিয়া ল্যান্ডার জানিয়েছেন, ‘‘গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্লাস্টিকের পাত্রে একটু বেশি গরম বা একটু বেশি ঠান্ডা খাবার রাখলেই, তাতে এমন কিছু রাসায়নিক মেশে, যা হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে দেয়’’

গবেষনায় আরও জানানো হয়েছে, অ্যালকোহল জাতীয় তরল বা নোনাজল প্লাস্টিকের পাত্রে রাখলেও এই একই ধরনের রাসায়নিক ক্রিয়া ঘটে। কিন্তু এগুলির ক্ষেত্রে খাবারের সাথে প্লাস্টিক মেশার আশঙ্কা থাকে সাধারণত ৭০ শতাংশ। কিন্তু প্লাস্টিকের পাত্রে যেমন- প্লাস্টিকের থালা, গ্লাস, বাটি বা প্লাস্টিকের টিফিনবক্সে গরম খাবার রাখলে তার থেকে প্লাস্টিকের খাবারে মেশার হার প্রায় ৯০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে যায়।

তাহলে এর থেকে বাঁচার উপায় কি? বিশেষজ্ঞ দলের প্রধান সোনিয়ার মতে, সব সময় লক্ষ্য রাখতে হবে গরম বা ঠান্ডা খাবার যেন কোনও মতেই প্লাস্টিকের সংস্পর্শে না আসে। প্লাস্টিকের পাত্রে খাবার রেখে তা কখনোই মাইক্রোওয়েভে বা ফ্রিজে রাখা যাবেনা। অর্থাৎ শরীরকে সুস্থ রাখতে হলে এগুলি আপনাকে অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে হবে।

Related Articles

Back to top button