GossipHoop PlusHoop Sports

Harbhajan-Geeta: স্বামী ফিট থাকলে স্ত্রীর শারীরিক অবস্থা কেমন হয়! ফাঁস করলেন হরভজন পত্নী

হরভজন সিং ( Harbhajan Singh) ও গীতা বসরা (Geeta Basra) ক্রিকেট দুনিয়ার পাওয়ার কাপল কোনোদিন হতে চাননি। তাঁরা সাধারণ দম্পতির মতোই থাকতে চেয়েছেন। একসময়ের মডেল-অভিনেত্রী গীতা বর্তমানে শুধুই একজন সফল মা। পাঁচ বছর বয়সী কন্যাসন্তান হিনারা (Hinara) ও এক বছর বয়সী পুত্রসন্তান জোবান (Zoban)-এর মা তিনি। কিন্তু তার মাঝেও গীতা নিজেকে যথেষ্ট ফিট রাখেন।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে গীতা জানিয়েছেন, তাঁর ফিটনেসের মূল কারণ হলেন হরভজন। হরভজনের কারণেই যথেষ্ট ফিট গীতা। কারণ হরভজনও ফিট। এছাড়াও সারাদিনের খাদ্যাভ্যাস গীতাকে ফিট থাকতে সাহায্য করে। তাঁর জীবনযাপন সাধারণ। গীতা কখনও কখনও সপ্তাহে একবার বাইরের খাবার খান। তবে বাড়ির খাবার তাঁর বেশি প্রিয়। তবে এই মুহূর্তে দুই সন্তানের দিকে নজর রাখতেই সময় কেটে যায় গীতার। ফলে নিজের ফিটনেসের দিকে অত নজর রাখতে পারেন না। কিন্তু গীতার মতে, নিজের জন্য কষ্ট করে হলেও একঘন্টা ওয়ার্কআউটের সময় বার করাই যায়। প্রকাশ্যেই তিনি বলেন, স্বামী ফিট থাকলে স্ত্রীও শারীরিকভাবে অনেকখানি ফিট থাকতে পারেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Geeta Basra (@geetabasra)

অথচ পরিবারের খেয়াল রাখতে গিয়ে তা সম্ভব হয় না। তাই নিউট্রিশনিস্টের পরামর্শ অনুযায়ী ডায়েট অনুসরণ করেন গীতা। তবে সন্তানের জন্মের পর মহিলাদের শারীরিক পরিবর্তন আসে। গীতার মতে, শারীরিক পরিবর্তন আসার ফলে তাড়াহুড়ো করে রোগা হওয়া ঠিক নয়। হিনারার জন্মের এক বছর পর গীতা জিমে গিয়েছিলেন ওয়ার্কআউট করতে। সেই সময় তাঁর নিউট্রিশনিস্ট তাঁকে যথেষ্ট সাহায্য করেছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয়বার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সময় কম খাওয়া-দাওয়া করেছিলেন তিনি। ফলে সেভাবে তাঁর ওজন বাড়েনি। তবে হেলদি খাবার খেয়েছেন তিনি। ফলে মা হওয়ার পর খুব তাড়াতাড়ি নিজের বাড়তি ওজন ঝরাতে পেরেছিলেন গীতা।

গীতার মতে, ফিট থাকার জন্য বিশেষ কিছু এক্সারসাইজ করা উচিত। তাহলে মা পর খুব সহজেই আগের চেহারায় ফিরে আসা সম্ভব। যোগা করলে শরীর ফিট থাকবে। কিন্তু সকলে যোগা করতে পারেন না। তাঁরা নিয়মিত হাঁটলে উপকার পেতে পারেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Geeta Basra (@geetabasra)