Bengali SerialHoop Plus

Gantchhora: সত্যিই মা হতে চলেছে দ্যুতি নাকি সবটাই মিথ্যে নাটক! ‘গাঁটছড়া’-র চমকে উদ্বিগ্ন দর্শকরা

পরপর আট সপ্তাহ ধরে টিআরপিতে এক নম্বরে রয়েছে গাঁটছড়া। টিআরপির শীর্ষস্থান থেকে প্রায় গাঁটছড়া কে টলানো অসম্ভব হয়ে পড়েছে। রাহুলের জমজমাট পর্দা ফাঁস, খড়ি এবং ঋদ্ধির আস্তে আস্তে প্রেমের বহিঃপ্রকাশ এইসব নিয়ে সাতটায় গাঁটছড়ায় চোখ আটকে রয়েছে দর্শকদের।

ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে যে রাহুলকে ঋদ্ধি নির্দেশ দিচ্ছে অন্তঃসত্ত্বা দ্যুতিকে বিয়ে করার জন্য। ঋদ্ধি খড়িকে বলে সে শুধু খড়ির কথায় এত বড় সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে খড়ি যেন তাকে নিরাশ না করে। খড়ি তাকে আশ্বাস দেয় এবারে অপরাধীর সঠিক পর্দা ফাঁস হবেই।

বর্তমানে গাঁটছড়ায় যে ট্র্যাক চলছে তাতে দর্শকরা রীতিমতো এখন বিরক্ত হয়ে উঠেছেন। বারবার অপরাধী হাতের নাগালে এসেও প্রমাণের অভাবে বারবার ফসকে যাচ্ছে। রাহুলের পর্দা ফাঁস করা সিংহ রায় বাড়ির সামনে সম্ভব হচ্ছে না। কোন না কোন উপায়ে রাহুল-ঠিক বেঁচে যাচ্ছে ধরা পড়ার হাত থেকে।

দ্যুতি যে অন্তঃসত্ত্বা নয়, এসবই দ্যুতির মিথ্যে নাটক তা আর বুঝতে বাকি নেই দর্শকদের। গত এপিসোডে দ্যুতির মনোলগ দেখে সেই ধারণা স্পষ্ট হয়ে যায় সকলের কাছে। খড়িকে সিঁড়ি হিসেবে ব্যবহার করে দ্যুতির এখন একমাত্র লক্ষ্য সিংহ রায় বাড়িতে প্রবেশ করা। রাহুলকে শিক্ষা দিতে দ্যুতি যা খুশি করতে পারে। গতকাল দ্যুতিকে বলতে শোনা যায় যে,“ যত পারো তোমরা আমায় কথা শোনাও, আমাকে হিংসা করো, আমি এমন চাল ফেলেছি যে কারো ক্ষমতা নেই আমাকে ধরার। আমাদের বড় বড় কথা, সব অপমানের মুখে আমি ভালো করে ঝামা ঘষে দিয়েছি। রাগ আর হিংসার বশে যতই তরপাও আমার টিকিটিও ছুঁতে পারবে না। আমি জানতাম আমার প্রেগনেন্সির খবর শুনে খড়ি আমার ওপর সিমপ্যাথি দেখাবেই। এবার দেখি আমায় বিয়ে না করে তুমি কোথায় পালাও।”

অন্যদিকে যদি দ্যুতি একবার ধরা পড়ে সিংহ রায় বাড়ির সকলের সামনে তাহলে সকলের অবিশ্বাসের মুখে পড়বে খড়ি। ঋদ্ধিমান তো স্পষ্ট জানিয়ে দেয় যে শুধুমাত্র খড়ির কথায় এই বিয়ের নির্দেশ দিয়েছে ঋদ্ধি। আর যদি প্রমাণিত হয় যে এসবের পিছনে দ্যুতির কোন ষড়যন্ত্র আছে তাহলে ঋদ্ধিমান এর থেকে খারাপ কেউ হবে না। আর এতেই খড়ির জন্য আশঙ্কা করছেন দর্শকেরা।