Hoop PlusHoop ViralReality show

বাউল সঙ্গীতে মুগ্ধ হয়ে গান শেষ হওয়ার আগেই অনন্যাকে মেডেল পরালেন হিমেশ, রইলো ভিডিও

জি টিভিতে শুরু হয়ে গিয়েছে সিঙ্গিং রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা’-র নতুন সিজন। কয়েক দিন আগেই ‘সারেগামাপা’-র মঞ্চে একতারা হাতে বাউল গান গেয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন অনন্যা চক্রবর্তী (Ananya Chakraborty)। এবার তাঁর গান শেষ হতে না হতেই শোয়ের বিচারক হিমেশ রেশমিয়া (Himesh Reshmiya) তাঁকে দিলেন মেডেল।

হিমেশ তাঁর নাম দিয়েছেন ‘অনু’। তবে হিমেশ অবশ্য নিজেই ভুলে গিয়েছিলেন এই কথা। অনন্যা আবারও তাঁকে মনে করিয়ে দেন। হিমেশ জানান, ঘরে তাঁকে পরিবারের সদস্যদের কথা শুনতে হয়। ফলে তিনি ভুলে যান সবকিছু। তবে এবার তিনি অনুর ভাই হয়ে প্রতিজ্ঞা করছেন,তিনি অনুকে ভুলবেন না। এরপরেই একতারা হাতে অনন্যা শুরু করেন তাঁর গান। বাংলা ভাটিয়ালি গান ‘কূল নাই, সীমা নাই’-এর সঙ্গে ‘ইকতারা’ গানের ম্যাশ আপ গেয়ে শোনান অনন্যা। তাঁর গানে উচ্ছ্বসিত হয়ে যান বিচারকরা। অনন‍্যা যখন চোখ বন্ধ করে গান গাইছিলেন, হিমেশ নিজেই উঠে গিয়ে সাবধানে তাঁর গলায় মেডেলটি পরিয়ে দেন। শোয়ের অপর বিচারক বিশাল দাদলানি (Vishal Dadlani) ও শঙ্কর মহাদেবন (Shankar Mahadevan)-ও অনন্যার গানের প্রশংসা করেন।

এর আগে জি বাংলা ‘সারেগামাপা’-র মঞ্চে অনন্যার কন্ঠে লোকসঙ্গীত প্রশংসিত হয়েছিল। এমনকি ‘সারেগামাপা’-র অডিশন রাউন্ডেও একতারা হাতে নিয়ে বলিউড ফিল্ম ‘লুটেরা’-র গান ‘মনটা রে’ গেয়েছেন তিনি। তাঁর গানে ছিল নিজস্ব গায়কী। বাউল মেলায় ঘুরতে ঘুরতে একদিন বর্ধমানের আন্দুলে সাধনদাস বৈরাগী (Sadhandas Bairagi)-র আশ্রমে উপস্থিত হয়েছিলেন অনন্যা। শৈশব থেকেই সঙ্গীতের পরিবেশে বড় হওয়া অনন্যা আত্মস্থ করেছেন বাউল গান। তিনি পড়াশোনা করেছেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভোকাল মিউজিক নিয়ে।

অনন্যা জানিয়েছেন, সারেগামাপা জাতীয় স্তরের মঞ্চ। সেই কারণেই এখানে আসা। এই মঞ্চে পরবর্তীকালে রবীন্দ্রসঙ্গীত গাওয়ার ইচ্ছা আছে তাঁর। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে অনন্যার গানের ভিডিও। আপাতত অনন্যার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে গোটা বাংলা।

Related Articles

Back to top button