Hoop PlusTollywood

Madhumita Sarcar: বাংলায় সাফল্যের পর এবার দক্ষিণী সিনেমায় অভিনেত্রী মধুমিতা

কখনো ওয়েব সিরিজ কখনো আবার সিনেমা। রীতিমতো কাজ নিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন ব্যস্ত মধুমিতা সরকার। কাজের মাঝে এক দন্ড বিশ্রাম নিতে পারেন না তিনি। মাত্র এই কয়েক বছরে টলিউডের আনাচ-কানাচ চেনা হয়ে গেছে তার। গত কয়েকদিন ধরে বাংলা মিডিয়াম এবং ইংলিশ মিডিয়াম নিয়ে বিস্তর বিতর্ক হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। এইসবের মাঝখানে বাংলা এবং ইংরেজি বাদ দিয়ে মধুমিতা সরকার রপ্ত করছেন নতুন ভাষা। টলিউড ইন্ডাস্ট্রি কাঁপিয়ে ছোটপর্দার সেই পাখি এখন ডানা মেলেছে দক্ষিণের জগতে। দক্ষিণের সিনেমায় খুব শীঘ্রই অভিষেক হতে চলেছে তার। এমনকি নায়িকা হিসেবেই সেখানে আত্মপ্রকাশ করবেন তিনি এবং তার বিপরীতে থাকবে চলেছেন তুমুল জনপ্রিয় এক সুপারস্টার।

ছোটপর্দা দিয়ে শুরু হয়েছিল মধুমিতার যাত্রা। তৎকালীন জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল সানন্দা টিভিতে ২০১১ সালে ‘সবিনয় নিবেদন’ ধারাবাহিকে। বিপরীতে ছিলেন তাঁর প্রাক্তন স্বামী সৌরভ চক্রবর্তী। এর পর স্টার জলসায় চুটিয়ে তিনি বিভিন্ন ধারাবাহিকে অভিনয় করেন। বোঝেনা সে বোঝেনা তাকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে নিয়ে আসে। তারপর লাভ আজ কাল পরশুর মাধ্যমে টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। এরপর তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তার শেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা চিনি বেশ ভালো কমার্শিয়াল হিট।

মধুমিতার এখন সামনে বহু কাজ পরে রয়েছে। এই বছরেই মুক্তি পেতে চলেছে কুলের আচার। তার সঙ্গে দেখা যাবে ইন্দ্রানী হালদার এবং বিক্রম চ্যাটার্জীকে। এত অল্প বয়সে পরপর সাফল্যের মুখ দেখেছেন মধুমিতা। এরপর তিনি দক্ষিণেও পা রাখছেন। যদিও এই বিষয়ে মধুমিতা স্পিক টি নট। সংবাদ মাধ্যমে তিনি এই বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ। বিষয়টি পাকাপাকি করতে তিনি আরও সময় চেয়ে নিয়েছেন।

তার শেষ মুক্তিপ্রাপ্ত কাজ হল উত্তরণ। এক ছাপোষা তরুণী গৃহবধূর হঠাৎ করে গোপন ভিডিও ভাইরাল হয়ে যাওয়া নিয়ে গল্প ছিল এই ওয়েব সিরিজের। চিত্রনাট্য অনুযায়ী পর্ণার চরিত্রের অনেক ভাঙা এবং গড়া ছিল। মধুমিতা যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছিলেন জয়দীপ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত সুকান্ত গঙ্গোপাধ্যায়ের উপন্যাস বটতলা অবলম্বনে নির্মিত এই সিরিজে।