GossipHoop Plus

Alia Bhatt: নিজের মেয়ের সঙ্গেই চুটিয়ে রোম্যান্স মহেশের, আলিয়ার পরিবারের সঙ্গে জড়িয়ে নানান কেচ্ছা

বলিউড মানেই বিতর্কের আঁতুড়ঘর। এমন সেলিব্রিটি খুব কম পাওয়া যায় যাকে ঘিরে কোনদিনও কোন গুঞ্জন রটেনি। সামনেই আলিয়া ভাটের বিয়ে। রণবীর কাপুরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন মহেশ ভাটের কনিষ্ঠা কন্যা। আলিয়া ভাট মহেশ ভাটের দ্বিতীয় পক্ষ সোনি রাজদানের মেয়ে।

আলিয়ার সৎ দিদি পূজা ভাটের সঙ্গে বাবা মহেশ ভাটকে নিয়ে বিতর্কে বলিউড উত্তাল হয়ে উঠেছিল একবার। এই বাবা-মেয়ে প্রকাশ্যে এমন কাজ করে বসতেন বা মন্তব্য করে বসতেন যা কিছু বিতর্ককে আরো উস্কে দিত। একবার একটি ম্যাগাজিনের কভার পেজের ফটোশুট করতে গিয়ে মহেশ ভাট তার কন্যা পূজা ভাটকে ঠোঁটে ঠোঁট লাগিয়ে লিপ লক চুমু দেন। যা ঘিরে মহেশ ভাট এবং পূজা ভাটের সম্পর্ক বাবা-মেয়ের সম্পর্ক থেকেও অন্য দিকে মোড় নেয় এমনটাই বলতে থাকে বলিপাড়া।

একটি সাক্ষাৎকারে পূজা ভাট বলেছিলেন যে একজন প্রেমিককে একজন প্রেমিকা যে ভাবে ভালবাসে তিনি তার বাবাকে সেই একইভাবে ভালোবাসেন। আর এই মন্তব্য ঘুম কেড়ে নেয় সমালোচকদের। আর এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বাবা মেয়ের সম্পর্ক ধীরে ধীরে অন্য দিকে মোড় নিতে শুরু করে। এই গুঞ্জন ধীরে ধীরে আলিয়ার জীবনেও বিরূপ প্রভাব ফেলতে শুরু করে। ভাট পরিবারের অন্দরমহলের এই কেচ্ছা বেশিদিন চাপা পড়ে থাকে নি। ঝড়ের গতিতে বলিপাড়ার প্রতিটি আনাচে-কানাচে মহেশ ভাট এবং পূজা ভাটের সম্পর্কের গুজব রটে যায়। যা ঘিরে এখনো প্রশ্ন ওঠে ভাট পরিবারকে নিয়ে।

ওদিকে আবার এইসব নিয়ে মহেশ ভাটের সাফ বক্তব্য ছিল যদি পূজা তার মেয়ে না হতেন তাকে বিয়ে করে নিতেন। আর এই মন্তব্যের ফলে তিক্ততা বাড়তে থাকে সোনি রাজধান এবং তার মধ্যে। অনেকেই বলেন এর জন্য প্রথম পক্ষের মেয়ে এবং সৎ মায়ের সম্পর্ক মোটেই ভালো নয়। আর এই খারাপ সম্পর্কে প্রভাব নিশ্চিতভাবে এসে পড়েছিল দুই বোনের মধ্যে। দুই বোনের বয়সের ফারাক অনেকটাই। যদিও এখন এসব বিতর্ক বলিউডের নানা উঠতি কেচ্ছার সামনে চাপা পড়ে আছে তবুও মাঝে মাঝে এই নিয়ে আলোচনা ওঠেই।