GossipHoop PlusReality show

আমার স্বামী পরিচিত মহিলাদের সাথে এক বিছানায় শুত: মন্দানা করিমি

নতুন শুরু হওয়া ওয়েব শো লক আপ এখন বিতর্কিত প্রতিযোগিদের আঁতুড়ঘর। রোজই নতুন বিতর্ক সামনে উঠে আসছে। প্রতিটি প্রতিযোগিদের বিরুদ্ধে একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য তাদের ঝুলি থেকে বার করে আনছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। ওয়াইল্ড কার্ডের মাধ্যমে প্রবেশ করেছেন মন্দানা করিমি। লক আপে জেলের ভিতরে তিনি বেশ কিছু নিজের সম্বন্ধে বিস্ফোরক তথ্য প্রকাশ করেছেন। কথোপকথনের সময় আজমা মন্দানাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন তার কোন প্রেমিক আছে কিনা। মন্দনা লজ্জা পেলে আজমা তাকে উত্যক্ত করতে শুরু করলে তিনি বলেন যে এই বিষয়ে তার কোন মন্তব্য নেই। আজমা বলেছিলেন যে তার বয়স এখন ২৩ এবং ২৬-২৭ বছর বয়সে তিনি বিয়ে করবেন।

এরপর মন্দানা বলেন যে তিনি ২৭ বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন। তিনি বলেন, “আমরা আড়াই বছর একে অপরকে ডেট করছিলাম এবং তারপরে বাগদান করেছি। আমরা ৭-৮ মাস ধরে লিভ ইন করেছি এবং তারপর বিয়ে করেছি, যা ছিল কোর্ট ম্যারেজ। আমরা আট মাস একসাথে থাকি, তারপরে আর এটা ভালো দিকে চলল না। তারপর আমরা চার বছরের জন্য আলাদা ছিলাম। আমরা সম্প্রতি ২০২১ সালে ডিভোর্সের পথে হাটি। সে এমন ভান করেছিল যেন আমার অস্তিত্বও নেই।

আরও যোগ করে মন্দানা আজমাকে বলেন, “এই চার বছরের বিচ্ছেদে, আমি যাকে চিনতাম তার সাথেই সে এক বিছানায় শুয়েছে।” কৌতূহল বশত, আজমা জিজ্ঞেস করে সে তার বন্ধুদের সাথেও শুয়েছে কিনা। যার জবাবে মন্দানা বলেন, আমার কোনো বন্ধু নেই। তিনি মন্দানাকে আরও জিজ্ঞাসা করেন কেন তিনি তাকে ডিভোর্স দিতে চাইছিলেন না। মন্দানা বলেছিলেন যে এটি একটি দীর্ঘ গল্প, যা তার গোপনীয়তার একটি অংশ। এর কারণ কেউ জানে না। তিনি মন্দানাকে ডিভোর্স দিতে চাননি।”

আজমা মন্দানাকে তার প্রাক্তন স্বামীর পরিবারের বিচ্ছেদের খবরে প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে প্রশ্ন করেছিলেন। মন্দানা বলেছিলেন যে তিনি যখন শুটিং করতেন, তখন তার প্রেমিকের মা তাকে ডোনাট, ফুল পাঠাতেন এবং কফি, কেনাকাটা করতে নিয়ে যেতেন। স্পা এবং পার্টি একসাথে করতেন তারা। এভাবে যে তিনি বেশ খোলা মনের ছিলেন সেটা বোঝালেন। “পরে, সে আমাকে বলতে শুরু করলো ‘তুমি এই লোকগুলোর সাথে কথা বলছো কেন? আমি একা কোথাও গেলে তিনি নিশ্চিত করেছেন সবাইকে ডেকে যে আমি আদতে সেখানে গিয়েছিলাম কিনা এবং আমি সেখানে আছি কিনা তা পরীক্ষা করে দেখেছেন। তারা বদলে গেল এবং হঠাৎ করে তারা মনে করল, ‘সালোয়ার কামিজ পরে আমার, মন্দিরের সামনে বসা উচিত’।”

মন্দানা বলেন, সময়ের সাথে সাথে, তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে পরিবার কে বা কারা বন্ধু বা পরিস্থিতি কি তার কাছে কোন ব্যাপার না, যদি আপনার সঙ্গী আপনাকে সমর্থন না করে তবে আর কেউ করবে না। আলী মার্চেন্ট, যিনি সারা খানের প্রাক্তন স্বামী, মন্দানার পাশে বসেছিলেন এ বিষয়ে পূর্ণ সহমত পোষণ করেন। প্রসঙ্গত এর আগে মন্দানা বিগ বস সিজন নয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন।