BollywoodHoop Plus

Mandira Bedi: মহিলা বলে ক্রিকেটাররা নিচু চোখে দেখতেন, মুখ খুললেন মন্দিরা বেদী

মন্দিরা বেদী (Mandira Bedi)-র কেরিয়ারের শুরু তৎকালীন দূরদর্শনের টেলিভিশন সিরিয়াল ‘শান্তি’ দিয়ে হলেও প্রকৃত পরিচিতি তিনি লাভ করেছিলেন সেট ম্যাক্সে ক্রিকেট ম্যাচ সংক্রান্ত অনুষ্ঠানগুলির সঞ্চালক হিসাবে। প্রতিদিন নিজের পোশাকের ক্ষেত্রে একের পর এক স্টাইল সেট করতেন মন্দিরা। দর্শকদের নজর থাকত তাঁর স্টাইলিস্ট ব্লাউজের দিকে। কিন্তু এবার লিঙ্গ বৈষম্যের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন মন্দিরা।

সেট ম্যাক্সে ‘হিট অ্যান্ড হট’ মন্দিরাকে দেখে অনেকেই ভাবতেন, তাঁরাও যদি এইরকম সঞ্চালনার সুযোগ পেতেন। মন্দিরাকে দেখা যেত, ক্রিকেট তারকাদের দিকে ট্রিকি প্রশ্ন ছুঁড়ে দিতে। কখনও কখনও তাঁরা অনেক ভেবেই এই ধরনের প্রশ্নের উত্তর দেন। কিন্তু এরপর কেটে গিয়েছে অনেকগুলি বছর। ঝাঁ চকচকে সেই অনুষ্ঠানের অন্ধকার দিকটি এবার প্রকাশ পেল মন্দিরার কথায়। 2003 এবং 2007 সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ সঞ্চালনা করেছেন মন্দিরা। কিন্তু তিনি মনে করেন, একজন মহিলাকে সঞ্চালক হিসাবে মেনে নিতে ক্রিকেট তারকাদের যথেষ্ট কষ্ট হত।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Mandira Bedi (@mandirabedi)

ক্যামেরার সামনে সাবলীল ভঙ্গিতে সঞ্চালনার ফলে মন্দিরা প্রশংসিত হলেও কয়েকজন খেলোয়াড়ের আচরণে তাঁর ভয় লাগত। একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে এই কথা জানিয়েছেন মন্দিরা। অনেক ক্রিকেটার তাঁর প্রশ্নের ঠিকমতো উত্তর দিতেন না বলে জানিয়েছেন তিনি।

পেশাদার মন্দিরাও লিঙ্গ বৈষম্যের শিকার। বহু ক্রিকেটার তাঁকে নিচু চোখে দেখতেন। মন্দিরার প্রশ্নগুলিকে তাঁরা কোনও গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের ইচ্ছামতো উত্তর দিতেন। এমনকি তাঁরা এমন ধরনের কথা বলতেন যা ছিল প্রসঙ্গের বাইরে। সেই সময়ের দেড়শো মহিলা সঞ্চালকের মধ্যে বেছে নেওয়া হয়েছিল মন্দিরাকে। চ্যানেল কর্তৃপক্ষ মন্দিরার অসুবিধার কথা বুঝতে পেরে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন। ফলে অনুষ্ঠান সঞ্চালনার সাহস পেয়েছিলেন মন্দিরা।

মন্দিরা জানিয়েছেন, প‍্যানেলে বসে থাকা কোনো ব্যক্তি প্রথম দিকে তাঁকে সঞ্চালক হিসাবে গ্রহণ করতে পারেননি। এমনকি বহু ক্রিকেটার বর্তমানে তাঁর বন্ধু হলেও সেই সময় তাঁরা মন্দিরাকে পছন্দ করতেন না। একজন মহিলা শাড়ি পরে, সেজেগুজে ক্রিকেট নিয়ে কথা বলবেন তা ছিল তাঁদের ধারণার বাইরে। কিন্তু মন্দিরা সব কিছু উপেক্ষা করে এগিয়ে গিয়েছিলেন, নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন সঞ্চালক হিসাবে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Mandira Bedi (@mandirabedi)