Hoop ViralHoop Story

Viral: পুরনো বস্তাপচা সংস্কার নয়, একে অপরের ভাত-কাপড়ের দায়িত্ব নিলেন নবদম্পতি, রইলো ভিডিও

বস্তা পচা কুসংস্কার এবার জীবন থেকে ছেঁটে ফেলাই ভালো। এমন নানান রকম ভিডিও সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হচ্ছে। নতুন প্রজন্ম যত সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, তত এই সমস্ত বস্তা পচা নিয়ম এর বিরোধিতা করছে। একদল মানুষ হয়তো তা পছন্দ করছেন না, তারা ভাবছেন নতুন প্রজন্ম অতিরিক্ত বেয়াড়া হয়ে গেছে, কিন্তু এই ধরনের নিয়মগুলোর কোন মানে আছে? যেমন ধরুন কন্যা দান, বউয়ের ভাত কাপড়ের দায়িত্ব নেওয়ার স্বামীর অধিকার, এই সমস্ত বস্তাপচা নিয়মগুলো এবার চলে যাওয়াই ভালো। মেয়েরা এখন কারোর উপরে নির্ভর করে না। তারা স্বাবলম্বী। স্বামীর টাকায় তারা খাবে, পড়বে এমনটা তারা নয়। বরঞ্চ দুজনে একসঙ্গে থেকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। তাদের সম্পর্ক হবে বন্ধুর মতন। কেউ কাউকে কোন ভাবে নিচু করতে পারবেনা।

এমন বার্তা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে এলেন সিউড়ির নব দম্পতি অর্কপ্রভ সিনহা এবং অর্পিতা সিনহা। বিয়েতে কোন কন্যাদান হয়নি। অর্কপ্রভ পেশায় একজন চিকিৎসক এবং অর্চিতা পেশায় একজন সমাজকর্মী। দুজনেই কেউ কারোর উপরে নির্ভরশীল না। তারা দুজনেই স্বাবলম্বী। স্ত্রী এর ভাত কাপড় জোগাড় এর দায়িত্ব গ্রহণ করেনি অর্কপ্রভ। তারা যেহেতু দুজনেই স্বাবলম্বী তাই তারা দুজনে দুজনের ভাত-কাপড়ের অর্থাৎ এক সঙ্গে পথ চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সমাজের সামনে অসাধারণ একটা বার্তা দিয়ে গেছেন। শুধু তাই নয়, শ্বশুর বাড়িতে আসার সময় অর্চিতা কোন রকম কনকাঞ্জলি দেয়নি। কারণ কনকাঞ্জলিতে তিনি বিশ্বাস করেননা।

ছোট একটা ভিডিওর মাধ্যমে তারা সমাজটাকে একটু পাল্টাতে চাইছে। এইভাবেই আমরা যদি প্রত্যেকে ছোট ছোট পদক্ষেপ নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে চলি, সমাজটা হয়তো একটু ভালো হবে। হোক না একটু নিন্দা, তাতে কি? অর্চিতার সমস্ত সিদ্ধান্তের পাশে রয়েছে তার বাপের বাড়ি এবং স্বয়ং তার স্বামী। নিয়ম ভাঙতে ভাঙতে তারা গড়ে তুলছেন তাদের নতুন সম্পর্কের রাস্তা।

দেখে নিন ভাইরাল ভিডিও –

Related Articles

Back to top button