Hoop PlusBollywood

Sushant Singh Rajput: একসঙ্গে মৃত্যু পরিবারের ৫ সদস্যের, ফের শোকের ছায়া সুশান্তের পরিবারে

সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput)-এর পরিবারের উপর যেন নেমে এসেছে মৃত্যুর করাল গ্রাস নেমে এসেছে। গত বছর সুশান্তের রহস্যজনক মৃত্যুর পর তাঁর মৃত্যুর তদন্তের দাবিতে সবচেয়ে অধিক সরব হয়েছিলেন তাঁর জামাইবাবু ও.পি.সিং ( O.P. Singh)। এবার মর্মান্তিক পথ দূর্ঘটনার ফলে মৃত্যু হল তাঁর।

ও.পি.সিং-এর বোন গীতা দেবী (Geeta Devi)-র শেষকৃত‍্যের অনুষ্ঠানে যোগদান করতে ও.পি.সিং সহ সুশান্তের পরিবারের পাঁচ জন সদস্য পটনা গিয়েছিলেন। পটনা থেকে ফেরার পথে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে বিহারের লখিসরাই জেলায় 333 নং জাতীয় সড়কে একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় তাঁদের গাড়ির। ললখিসরাই-এর পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্ট সুশীল কুমার (Sushil Kumar) জানিয়েছেন, অন্তত দশ জন ছিলেন ওই গাড়ির আরোহী। ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারিয়েছেন গাড়ির চালক সহ পরিবারের পাঁচ জন সদস্য। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন গীতা সিং-এর স্বামী লালজিৎ সিং (Laljit Singh), ভাই ও.পি.সিং, নেমানি সিং (Nemani Singh), অমিত শঙ্কর (Amit Shankar), সুনীতা দেবী (Sunita Devi), অনিতা দেবী (Anita Devi) ও গাড়ির চালক চেতন কুমার (Chetan Kumar)।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by UNTOLD NORTHEAST (@untold_northeast)

বাকি চার জন আরোহীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত জারি রাখতে প্রত্যক্ষ ভাবে তাঁর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন ও.পি.সিং। মামলা যাতে ঠিক পথে এগোয়, তার চেষ্টা করছিলেন তিনি। সুশান্তের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন তিনি। সুশান্তের মৃত্যু রহস্য যখন একের পর এক নতুন মোড় আসছে, তখন ও.পি.সিং-এর মৃত্যু কোথাও একটা প্রশ্ন রেখে যাচ্ছে। কিছুদিন আগেই ভারত সরকারের তরফে এই মামলায় ফেসবুক ও গুগল কর্তৃপক্ষের সাহায্যের জন্য আবেদন করা হয়েছিল। কারণ সুশান্তের মৃত্যুর পর তাঁর কিছু ইমেল ডিলিট করা হয়েছিল এবং মুছে দেওয়া হয়েছিল কিছু সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট। সেই রহস্যজনক পোস্ট পুনরুদ্ধারের জন্য ফেসবুক ও গুগলের সাহায্য চেয়েছিলেন সিবিআই আধিকারিকরা। এমতাবস্থায় ও.পি.সিং-এর মৃত্যু ঘটল না ঘটানো হল?

ভারতীয় আবহাওয়ায় এইসময় শীতকালীন প্রভাব থাকার কারণে ভোররাতে থাকে জমাট বাঁধা কুয়াশা। কুয়াশার মধ্যে দিয়ে ফগ লাইট জ্বালিয়ে গাড়ি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যথেষ্ট কঠিন তা যেকোন ড্রাইভার জানেন। ফলে তাঁরা রিস্ক নিতে চান না। তাহলে ভোরের আলো ফোটা অবধি ও.পি.সিং-দের গাড়ি অপেক্ষা করেনি কেন? তাহলে কি সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে স্থগিত করে দেওয়ার জন্য ষড়যন্ত্রের শিকার হলেন ও.পি.সিং?

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Instant Bollywood (@instantbollywood)

Related Articles

Back to top button