Bengali SerialHoop Plus

Priyanka Mitra: সিরিয়াল নির্মাতাদের কুপ্রস্তাব, অভিনয় থেকেই সরে গিয়েছিলেন ‘খড়কুটো’-এর চিনি

‘ছদ্মবেশী’ সিরিয়ালে মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় করার পর একটু বিরতি নিয়ে আবারও ‘খড়কুটো’ ও ‘মোহর’-এ পার্শ্ব চরিত্রে ফিরেছেন প্রিয়াঙ্কা মিত্র (Priyanka Mitra)। ‘খড়কুটো’-র চিনি ইতিবাচক ও ‘মোহর’-এর দিয়া নেতিবাচক। কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রিয়াঙ্কার অভিনয়ে ব্যালান্স রয়েছে। তাঁকে পরীক্ষামূলক চরিত্রে বাছার জন্য ম্যাজিক মোমেন্টস-এর কাছে কৃতজ্ঞ প্রিয়াঙ্কা।

মূখ্য চরিত্রে অভিনয়ের পর পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করতে খারাপ লাগে না প্রিয়াঙ্কার। কারণ তাঁর কাছে চরিত্রের গুরুত্ব আসল। নাচ নিয়ে পড়াশোনা করতে করতে হঠাৎই অভিনয়ে এসেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। কিন্তু ‘ছদ্মবেশী’-তে অভিনয় করতে করতেই সরে গিয়েছিলেন ইন্ডাস্ট্রি থেকে। সহ-অভিনেতাদের সঙ্গে কোনও সমস্যা না হলেও পরিচালক ও প্রযোজকরা বিরক্ত করতেন। প্রিয়াঙ্কার ফোনে খারাপ মেসেজ আসত। খারাপ প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রিয়াঙ্কাকে হেনস্থা করা হত। ভয় পেতেন প্রিয়াঙ্কা। বাড়ি ফিরে কাঁদতেন। শেষ অবধি ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে থাকাই মনস্থ করেন তিনি। টানা দুই বছর ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে থাকার পর আবারও অভিনয়ে ফিরেছেন প্রিয়াঙ্কা।

তবে ‘ছদ্মবেশী’ ইউনিটের খারাপ মানুষগুলি নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে প্রিয়াঙ্কার কাছে মেসেজ করে ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু এই অভিজ্ঞতা প্রিয়াঙ্কাকে মানসিক ভাবে শক্তিশালী করে তুলেছে। বর্তমানে তিনি ভয় পান না। স্পষ্ট কথা বলতে শিখেছেন প্রিয়াঙ্কা। তবে ম্যাজিক মোমেন্টস-এ প্রাপ্য সম্মান পেয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। ভবিষ্যতে সিরিয়াল, ফিল্ম, ওটিটিতে সবকিছুতেই কাজ করতে চান প্রিয়াঙ্কা। আগ্রহ আছে রাজনীতিতেও।

প্রিয়াঙ্কার কথা শোনার পর কি এখনও মনে হচ্ছে টলিউডে কাস্টিং কাউচ নেই? কারণ ‘মিটু’-র সময় বলিউড ও হলিউড মুখ খুললেও মুখ বন্ধ করে রেখেছিল টলিউড। পরবর্তীকালে টলিউডের কয়েকজন নামী অভিনেত্রী বলেছেন, তাঁরা কোনোদিন কুপ্রস্তাব পাননি। যদিও কোথায় আছে, যা রটে তার কিছুটা তো বটেই।