সন্তান নিতে চাইলে জানুন মিলনের উপযুক্ত সময়, সঙ্গে রইল পাঁচটি জরুরি টিপস

বিবাহের পরে স্বামী-স্ত্রীর একটাই কাঙ্খিত চাহিদা হল ফুটফুটে সন্তানের জন্ম দেওয়া। তবে তা কখনোই দুজনে ইচ্ছার বিরুদ্ধে হওয়া উচিত নয়। তবে মা হতে চাইলে সবার আগে কতগুলো জিনিস মেনে চলতে হবে। সঠিক জীবন যাপন করতে হবে, স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে। প্রয়োজনে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে ডাক্তারের দেওয়া সমস্ত কিছু টেস্ট করিয়ে আপনি সুস্থ কিনা জেনে নিয়ে তবেই মা হতে চেষ্টা করুন।

সাধারণত কোনো এক নারীর পিরিয়ড এর শুরুর দিন থেকে সাত – আট দিন মধ্যে ডিম্বাণু তৈরি হওয়ার সুযোগ নেই। তাই এই সময় স্বামীর সঙ্গে মিলিত হলে সন্তান ধারণের সম্ভাবনা খুবই কম। সন্তান নিতে চাইলে ১০ দিন পরে স্বামীর সঙ্গে মিলিত হন।

একটা কথা মাথায় রাখতে হবে। বাচ্চা নিতে চাইলে প্রতিদিন শারীরিক মিলন করা একেবারেই জরুরি নয়। শারীরিক মিলন কখনই জোর করে করা উচিত নয়। মানসিক চিন্তা, ক্লান্তি, অবসাদ ইত্যাদি নিয়ে জোর করে শারীরিক মিলন করলে পুরুষদের বীর্যের ঘাটতি হতে পারে। তাই একদিন অন্তর একদিন এই পদ্ধতি মেনে চলুন।

শারীরিক মিলনে করনীয় কাজ-»
১) শারীরিক মিলনের সময় কোমরের নিচে একটা কোলবালিশ রাখতে পারেন। খেয়াল রাখতে হবে বীর্য যেন যৌনাঙ্গের দিকেই যায়।

২) যেদিন শারীরিক মিলনের প্ল্যান করবেন সেদিন অবশ্যই রাতে শুতে যাওয়ার সময় হালকা খাবার খাবেন, গরমকাল হলে স্নান করে শুতে পারেন্। এতে শরীর অনেক রিলাক্স থাকবে।

৩) শারীরিক মিলনের সাথে সাথে উঠে বাথরুমে যাবেন না। মিলনের পর যৌনাঙ্গ পরিষ্কার করা খুব প্রয়োজন। কিন্তু যদি সন্তানের প্ল্যান করে থাকেন তাহলে কয়েকটা দিন এই অভ্যাস বদলাতে হবে। অন্তত এক ঘন্টা যৌনাঙ্গ না ধোয়াই ভালো।

৪) নানান রকমের যৌনাঙ্গের ভঙ্গিমা প্রচলিত থাকলেও যখন সন্তান নিতে চাইছেন তখন মিশনারি পজিশনকেই বেছে নিন।

৫) সর্বোপরি দু’জনকেই হাসি আনন্দের মধ্যে থাকতে হবে। মিলনের ব্যাপারটিকে পুরোটাই আনন্দদায়ক করে তুলুন। তাহলে সন্তান ধারনে কোন সমস্যাই থাকবে না।