Hoop ViralHoop Story

Ranu Mondal: ইউটিউবারকে চূড়ান্ত অপমান! ৭০০ টাকা কেজি খাসির মাংস ফেলে দিলেন রানু মন্ডল

রানাঘাটের রানু মন্ডল এক সময় রানাঘাটের রেল স্টেশনে বসে ভিক্ষা করতেন। ভিক্ষাবৃত্তি করেই তার জীবন চলত। কিন্তু একটা সময় অতীন্দ্র মন্ডল এর সাহায্যে রানু মন্ডল এর একটি গানের ভিডিও যেখানে তিনি তার সুরেলা গলায় গিয়েছিলেন ‘এক প্যায়ার কা নাগমা হ্যা’ গান পৌঁছে গিয়েছিল লক্ষ লক্ষ মানুষের কাছে। তারপর তার এই অসাধারণ গানের জন্য তিনি মুম্বাইতে গিয়েছিলেন। কয়েকদিনের জন্য সেখানে অনেক নামি দামি শিল্পীদের সঙ্গে তিনি কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন। এমনকি হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে তিনি ‘তেরি মেরি গান’ গেয়েও সকলের কাছে আবার নতুন করে সকলের কাছে পৌঁছে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার পরে যা হয় আর কি, অহংকারই পতনের কারণ হয়।

আরো পড়ুন -   টাকা গুনে অডিশন দিলেই ফিল্মে ১০০% সুযোগ! শুনুন সায়নীর বক্তব্য

রানু মন্ডলের অনেক ব্যবহার সাধারণ মানুষ সহজে গ্রহণ করতে পারেননি। আর সাধারন মানুষ যদি একবার অপছন্দ করতে শুরু করে তখন সেখানে গায়ক গায়িকাদের অবস্থা খুব খারাপ হয়। আর রানু মন্ডল এর কোন রকম প্রথাগত শিক্ষাও ছিলনা। ঈশ্বরপ্রদত্ত গলা দিয়ে তিনি যতটুকু গান গাইতেন, এছাড়া মাঝে মধ্যে তার কথা শুনে মনে হয় তিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন। ইউটিউবাররা আসেন এবং তারা যতটুকু জানেন তাতেই তার কোনো রকমে সংসার চলে। এই ভাবেই রানু মন্ডল এর ভিডিও এখন শুধু গানের জন্য নয়, হাসি মজা আড্ডা নানান রকম কথোপকথনে ভরপুর থাকে।

আরো পড়ুন -   অসাধারণ জায়গা তবু নেই কারো বসবাস, ভুতুড়ে গ্রামে লুকিয়ে আছে অদ্ভুত সব রহস্য

কিন্তু সম্প্রতি একজন ইউটিউবার গিয়েছিলেন খাসির মাংস হাতে করে, কিন্তু রানু মন্ডল এই মাংস দিয়ে ফেলে দিয়েছে। উল্টে এই যুবককে তিনি কোলড ড্রিংস আনার কথা বলছেন এবং অনেক খারাপ কথাও শুনিয়েছেন। এই ভিডিও দেখে মোটামুটি খেপে লাল হয়ে গেছে নেট নাগরিকরা। তবে যে যুবক খাসির মাংস নিয়ে গিয়েছিলেন তিনিও খুব রেগে গেছেন। কষ্ট করে দাম দিয়ে কেনা মাংস এইভাবে ফেলে দেওয়াটা বোধ হয় রানুদির উচিত হয়নি।

আরো পড়ুন -   অন্তিম যাত্রাপথে দিলীপ কুমার, সরকারের তরফ থেকে পেলেন শেষ শ্রদ্ধাঞ্জলি, রইলো ভিডিও

তাই আর দেরি না করে চটজলদি Hoophaap এর পাতায় দেখে ফেলুন রানু মন্ডলের এই ভিডিওটি –

Related Articles

Back to top button