BollywoodHoop Plus

Rashmika Mandana: ‘যৌনকর্মী’ তকমা দেন নিন্দুকেরা, আত্মবিশ্বাস ভেঙে গিয়েছিল রশ্মিকার

‘পুষ্পা’-র দৌলতে রশ্মিকা মন্দানা (Rashmika Mandana) ইতিমধ্যেই ‘ন্যাশনাল ক্রাশ’। রশ্মিকার জন্মদিনে তাঁর নতুন ফিল্মের ঘোষণাও হয়েছে। ‘থালাপতি 66’ ফিল্মে থালাপতি বিজয় (Thalapathy Vijay)-এর বিপরীতে অভিনয় করছেন রশ্মিকা। কিন্তু আলোর নিচেই থাকে অন্ধকার। তাই রশ্মিকাকেও বডি শেমিং-এর শিকার হতে হয়েছে।

একটি সাক্ষাৎকারে রশ্মিকা জানিয়েছেন, দিনের পর দিন কটাক্ষের শিকার হওয়ার ফলে মানসিক অবসাদে ভুগেছেন তিনি। এই কারণে বডি শেমিং-এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন রশ্মিকা। রশ্মিকা নিজে সাইকোলজিতে স্নাতক হলেও ট্রোলিং-এর ফলে তাঁরও মানসিক স্বাস্থ্য বিঘ্নিত হয়েছিল। রশ্মিকা জানিয়েছেন,বারবার যখন তাঁর দেহ, গায়ের রঙ, ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে বিদ্রুপ করা হয়, তখন তাঁর মনে হয়, তিনি যেন জনতার সামনে রাস্তায় নগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

তবে শুধুমাত্র বডি শেমিং করেই ক্ষান্ত থাকেননি নেটিজেনদের একাংশ। তাঁরা রশ্মিকার পরিবার, স্কুল ও বেড়ে ওঠা নিয়েও কটাক্ষ করেছেন। এছাড়াও কখনও রশ্মিকাকে ট্রোল করা হয় তাঁর পোশাকের জন্য, কখনও বা অন্তর্বাসের জন্য। এমনকি একবার গাড়ি থেকে নামার সময় মাস্ক পরতে ভুলে গিয়েছিলেন রশ্মিকা। যখন তাঁর খেয়াল হয়, ততক্ষণে তাঁর মাস্কবিহীন ছবি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফলে তাঁকে ট্রোল করাও শুরু হয়েছে।

একবার ছোটবেলার ছবি ইন্সটাগ্রামে পোস্ট করার পর রশ্মিকাকে শুনতে হয়েছিল, তিনি যৌনকর্মী। রশ্মিকা এই ঘটনার প্রতিবাদ করে বলেন, কোনো ব্যক্তিকে এই ধরনের কুরুচিকর আক্রমণ করা উচিত নয়। অহেতুক পরিবার বা ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সমালোচনা না করে কাজ নিয়ে মন্তব্য করা উচিত বলে মনে করেন রশ্মিকা।

দিনের পর দিন ট্রোলের সম্মুখীন হবার ফলে নিজের আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছিলেন রশ্মিকা। নিজের অভিনয় ক্ষমতা সম্পর্কেও তাঁর সন্দেহ হচ্ছিল। কিন্তু নিজেই ধীরে ধীরে এই সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসেন। সম্প্রতি রশ্মিকা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, মানুষ হিসাবে কেউ পারফেক্ট নয়। কিন্তু প্রতিটি মানুষের নিজের ব্যাপ্তি সম্পর্কে সচেতন থাকা উচিত।