বিজয়ী হওয়া নিয়ে চলছে তুমুল বিতর্ক, অর্কদীপকে নিয়ে মুখ খুললেন প্রতিযোগী সমদীপ্তা

গত রবিবার শেষ হল জি বাংলা সারেগামাপা গ্র্যান্ড ফিনালে। বিচারকমণ্ডলীর বিচারে সেরার সেরা মুকুট গিয়ে উঠেছে নৈহাটির অর্কদীপ মিশ্রের মাথায়। তবে বিচারকমণ্ডলীর এই সিদ্ধান্তকে একদমে মেনে নিতে পারছেন না নেটিজেন মহল। তাদের একাংশের দাবি অর্কদীপ এর সেরার সেরা হওয়ার কোনো যোগ্যতাই নেই। তবে তারা শুধু এইটুকু কথা বলেই থেমে থাকেননি একটার পর একটা খারাপ খারাপ কথায় ভরে গেছে গোটা সোশাল মিডিয়ার কমেন্ট সেকশন। ইমন, রূপঙ্কর, জয় সরকার, লোপামুদ্রা ছাড়াও অনেকেই এই নিয়ে অনেকেই সোচ্চার হয়েছেন। তবে এবারে অর্কদীপ এর পাশে দাঁড়ালেন সমদীপ্তা তার হয়ে কথা বললেন ফেসবুক লাইভে।

দক্ষিণ কলকাতার এক নাম না করা ছোট জায়গায় তিনি থাকেন তার মা-বাবার সঙ্গে। এইখান থেকে মেয়েটির গান ফেসবুকের মাধ্যমে এতটাই ভাইরাল হয়ে যায় যে গানের সরস্বতী লতা মঙ্গেশকরের চোখে পড়ে । গান গাওয়ার পাশাপাশি আঁকতেও ভালোবাসেন তিনি। লতামঙ্গেশকারের একটি বিখ্যাত গান গেয়ে তিনি যখন ওয়ার্ল্ড মিউজিক ডে তে শুধুমাত্র সারগাম এর উপর ভিত্তি করে সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন, তখন সাধারণ মানুষের পাশাপাশি ইন্ডাস্ট্রির অনেক তাবড় তাবড় ব্যক্তিত্ব তাকে বিষয়টি নিয়েও উপহাস করেছিল। তাকে শুনতে হয়েছিল তিনি নাকি এ বিষয়টির জন্য টাকা খাইয়েছেন।

যাকে স্বয়ং লতামঙ্গেশকার টুইট করেছেন, যার গান নিয়ে প্রশংসা করেছেন সেই রকম একটা সুন্দর মুহূর্ত যে এইভাবে খারাপ মুহূর্তে পরিণত হয়ে যেতে পারে তাই শেয়ার করেছেন সমদীপ্তা। সেই মুহূর্তে সমদীপ্তা ভেবেছিলেন, যে এই বিষয়টি হয়তো না হলেই ভালো হতো। ঠিক এখন যে পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন অর্কদীপ। অর্কদীপ তো বলেনি আমি চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। সাধারণ মানুষের অবশ্যই বলার অধিকার আছে প্রত্যেকের বাকস্বাধীনতা আছে কিন্তু এইভাবে বলাটা কি উচিত? এই প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন সমদীপ্তা তার ফেসবুক লাইভ এর মাধ্যমে।