Bengali SerialHoop Plus

Solanki Roy: ‘মিঠাই’-এর কাছে প্রথম স্থান খুইয়ে কি বললেন ‘খড়ি’ শোলাঙ্কি!

গতকাল প্রকাশ্যে এসেছে এই সপ্তাহের টিআরপি। আর সেই টিআরপি তালিকায় এবার বিশাল চমক। দীর্ঘদিন পর আবার শীর্ষস্থানের শিরোপা মিঠাইয়ের হাতে। আবারো মনোহরায় মেতেছেন দর্শক। উচ্ছেবাবু মিষ্টি যে দর্শকদের মন কাড়তে সক্ষম হয়েছে তা কালকেই বোঝা গিয়েছে। এ যেন এক রাজার রাজার মতই যুদ্ধক্ষেত্রে ফেরা। দীর্ঘদিন পর আবার যখন মিঠাই বেঙ্গল টপার হলো তার ধরাছোঁয়ার বাইরে গত সপ্তাহের বেঙ্গল টপার গাঁটছড়ার রেটিং।

অনেকদিন পর গাঁটছড়ার সিংহাসন মিঠাইয়ের দখলে। এই সপ্তাহের ৯.৮ পেয়ে বেঙ্গল টপার মিঠাই। হারিয়ে যাওয়া জায়গা আবারো ফিরে পেয়ে সৌমিতৃষা উচ্ছ্বসিত। তার বক্তব্য প্রতি সপ্তাহে কত টিআরপি এসেছে তা দেখে কোনদিনও মিঠাইয়ের টিম কাজ করেনি। লক্ষ লক্ষ মানুষের ভালোবাসার টিআরপির থেকে অনেক ঊর্ধ্বে অবস্থান করে। তার মতে একটি সিরিয়ালের যত বয়স বাড়বে তত তার টিআরপিতে নানা পরিবর্তন আসবে। তাই ধারাবাহিকের রেটিং তাকে কোনদিনও ভাবায় না। তাদের ধারাবাহিক যদি সেরা পাঁচের বাইরে চলে যায় তাহলেও মানুষ সমান ভালোবাসা দেবেন।

একটি সিরিয়াল এতদিন ধরে চললে তার টিআরপিতে পরিবর্তন আসতে বাধ্য। কিন্তু হারানো সম্মান ফিরে পেয়ে আবারো উচ্ছ্বসিত মিঠাইয়ের পরিচালক রাজেন্দ্র প্রসাদ দাস। তার মতে মিঠাই এর গল্প বা পরিচালনায় যাতে এতটুকু খামতি না আসে সেই চেষ্টা করেছেন তিনি। মিঠাই যখন প্রথম স্থান থেকে ছিটকে যায় স্বভাবতই তার মন খারাপ হয়ে যায়। তবে তার মতে একটি নতুন ধারাবাহিকের সাফল্যের সঙ্গে কখনই দেড় বছর ধরে চলতে থাকা ধারাবাহিকে তুলনা করা যায় না। সেরার স্থান থেকে ছিটকে গেলেও শুরুর দিন থেকে আজ অবধি কোনদিনও সেরা পাঁচের বাইরে যায়নি এই ধারাবাহিক। তবে কখনই রেটিং নিয়ে বিশেষ ভাবেন না তিনি। নিজের কাজের মাধ্যমে দর্শকদের সেরাটুকু দেওয়ার চেষ্টা করেন মাত্র।

অন্যদিকে দীর্ঘ নয় সপ্তাহ পর সেরার আসন থেকে ছিটকে গেছে গাঁটছড়া। যে ধারাবাহিক কিছুদিন আগেই অপ্রতিরোধ্য ছিল তার হঠাৎ এই নিম্নগতি টিআরপি দেখে দর্শকরা হতাশ। দর্শকদের মতে রাহুল এবং দ্যুতির অত্যাধিক কুটনামির জন্য রেটিং এমন দশা এসেছে। ইচ্ছেনদীর পর আবারও এই ধারাবাহিকের মাধ্যমেই বেঙ্গল টপারের শিরোপা পান অভিনেত্রী শোলাঙ্কি রায়। মিঠাইয়ের কাছে হেরে গিয়ে তিনি কি দুঃখ পেয়েছেন? তার কি মতামত? শোলাঙ্কি অর্থাৎ খড়ির স্পষ্ট বক্তব্য তিনি এই ইন্ডাস্ট্রিতে বহুদিন ধরে রয়েছেন। একটি ধারাবাহিকের উত্থান হলে পরবর্তীতে একদিন সেই ধারাবাহিকের পতন হয় এ ধ্রুবসত্য তার ভালোভাবে দেখা। তাই এইসব নিয়ে বিচলিত হননি তিনি। তিনি কাজ করেন শুধু দর্শকদের আনন্দ দেওয়ার জন্য রেটিংয়ের কথা তার মাথায় আসেনা। তার বক্তব্য তিনি কি স্কুলে পড়েন যে মিঠাই এর সঙ্গে তিনি প্রতিযোগিতায় নামবেন!