স্কুলে যাওয়ার সময় চোখাচোখি, সৌরভ-ডোনার রঙিন যাত্রা সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে

চলতি বছরের 8 ই জুলাই 49 বছর বয়সে পা রাখলেন বাঙালির ‘মহারাজ’ সৌরভ গাঙ্গুলী (sourav Ganguly)। বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের কুর্শি, ভারতীয় ক্রিকেট টিমের ক্যাপ্টেনের দায়িত্ব, লর্ডসের সেঞ্চুরি সব সামলেও সৌরভ এখনও নিজেকে ফিট রেখেছেন। সৌরভকে ফিট রাখার দায়িত্ব যাঁর কাঁধে, তিনি, শুধুমাত্র সৌরভের ঘরণী নন, রীতিমতো হোম ম্যানেজার ডোনা গাঙ্গুলী (Dona ganguly)।

বিখ্যাত নৃত্যশিল্পী ডোনা গাঙ্গুলী (dona ganguly) ও ‘প্রিন্স অফ ক্যালক‍্যাটা’ সৌরভের প্রেমকাহিনী আশৈশব। ডোনা ও সৌরভ দুজনে ছিলেন প্রতিবেশী। তখন ডোনা ছিলেন ‘রায়’। ডোনা স্কুল যাওয়ার সময় সৌরভের সঙ্গে চোখাচোখি হয়ে যেত। কখনও বা ফুটবল ম্যাচ খেলতে যাওয়ার সময় সৌরভ ডোনার বাড়ির জানলার দিকে তাকাতেন ডোনা দাঁড়িয়ে আছেন কিনা দেখার জন্য। কিন্তু ডোনা ও সৌরভের পরিবার একে অপরকে পছন্দ করতেন না। ডোনার সঙ্গে দেখা করার অভিনব উপায় বার করেছিলেন সৌরভ। তিনি যখন ব্যাডমিন্টন প্র্যাকটিস করতেন, তখন শাটলকর্ক গিয়ে পড়ত ডোনাদের বাড়ির উঠোনে। অতএব তা আনতে সৌরভকে ডোনাদের বাড়ি যেতেই হতো। সৌরভ ও ডোনা টিনএজে একসঙ্গে ম্যান্ডারিন রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েছিলেন। সেটাই ছিল তাঁদের প্রথম ‘ডেট’। তবে সৌরভ নিজে খুব নার্ভাস ছিলেন সেদিন। ফলে তিনি প্রচুর খাবার খেয়ে ফেলেছিলেন। ডোনা তো একদম হাঁ, একটা মানুষ এত খেতে পারে!

কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট টিমে যোগ দেওয়ার পর সৌরভ বুঝতে পারলেন, ডোনাকে তাঁর কাছ থেকে দূরে রাখা যাবে না। সৌরভ ও ডোনার প্রেম মেনে নেননি তাঁদের পরিবার। সুতরাং সৌরভ সেদিন জীবনের সবচেয়ে সাহসী কাজ করেছিলেন। ইংল্যান্ডে ভারতীয় টিমের ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে যাওয়ার ঠিক আগে সৌরভ ডোনাকে নিয়ে চলে গিয়েছিলেন ম্যারেজ রেজিস্টারের অফিসে। পরিবারের অজান্তেই দুজনে বিয়ে করেছিলেন। এরপর ছয় মাস অবধি নিজেদের বিয়ে লুকিয়ে রেখেছিলেন সৌরভ ও ডোনা। কিন্তু 1997 সালের ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠান করে বিয়ে করেন তাঁরা। উপস্থিত ছিলেন তাঁদের পরিবার।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dharmistha (@dharmisthaaaa)

তারপর গঙ্গা দিয়ে গড়িয়ে গেছে অনেক জল। নাগমা (Nagma)-র সঙ্গে সৌরভের সম্পর্ক নিয়ে অনেক রটনা হয়েছে। কিন্তু চিড় ধরেনি সৌরভ-ডোনার সম্পর্কে। বিশ্বাসের ভিত এতটাই মজবুত ছিল যা তাঁদের ভালোবাসাকে পরিণতি দিয়েছে। তাঁদের একমাত্র মেয়ে সানা (sana) -র কাছে তাঁরা আদর্শ মা-বাবা। সৌরভ-ডোনা, ভালোবাসার অপর নাম, যাঁদের প্রেমের কাছে নত হয়েছিল সমস্ত নেতিবাচক প্রভাব।