Hoop PlusBollywood

জিন্সে নিষেধাজ্ঞা, বুক ঢাকতে হয় ওড়নায়, বাধা পেতে পেতে এই জায়গায় পৌঁছেছি: উর্ফি জাভেদ

মেয়েরা ছক ভাঙলে সমাজে হাজারও কথা শুরু হয়। কিন্তু প্রাচীন কাল থেকে মেয়েদের লক্ষ্মণরেখা ডিঙিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা কেউ আটকাতে পারেননি। উর্ফি জাভেদ (Urfi Javed) সেই নারীদের মধ্যেই একজন। উর্ফি হয়তো খুব অদ্ভুতদর্শন পোশাক পরেন। কিন্তু চিরকাল তিনি এই রকম ছিলেন না। 1997 সালের 15 ই অক্টোবর লখনউ-এর রক্ষণশীল মুসলমান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন উর্ফি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Urfi (@urfijavedofficial)

তাঁর পরিবারের রক্ষণশীলতা কোনোদিন মানতে পারেননি তিনি। মাত্র সতের বছর বয়সে পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান উর্ফি। কিন্তু থাকার জায়গা ছিল না। স্নাতক পাশ না হওয়ার ফলে চাকরি পেতেও অসুবিধা হচ্ছিল। অবশেষে একসময় একটি কল সেন্টারে কাজ পান তিনি। কিন্তু ভালো লাগছিল না চাকরি করতে। একমাস চাকরি করে ছেড়ে দেন উর্ফি। পাড়ি দেন মুম্বই। সেখানে বন্ধুর বাড়ি থাকতে শুরু করেন তিনি। উর্ফি সঞ্চালনার কাজ খুঁজতে থাকেন। তার পাশাপাশি খুঁজতে থাকেন চাকরি। কয়েকটি জায়গায় অডিশনও দেন তিনি। সেই সূত্রে কাস্টিং ডিরেক্টরদের সঙ্গে পরিচয় হতে শুরু করে। ধীরে ধীরে ছোটখাট কাজ পেতে শুরু করেন উর্ফি।

কিন্তু বিগ বস ওটিটি তাঁর জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। এই শোয়ের মাধ্যমে তিনি পরিচিতি লাভ করেন। একসময় জাভেদ আখতার (Javed Akhtar)-এর নাতনী হিসাবে রটেছিল তাঁর পরিচয়। শাবানা আজমি (Shabana Azmi) টুইট করে জানান, উর্ফি তাঁদের পরিবারের সঙ্গে সম্পর্কিত নন। উর্ফি নিজেও জানান, জাভেদ শুধুমাত্র তাঁর পদবী। তিনি জাভেদ আখতারের নাতনী নন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Urfi (@urfijavedofficial)

তবে উর্ফি খোলামেলা পোশাক না পরেও ট্রোল হয়েছেন। গণেশ চতুর্থীতে তিনি সাধারণ কুর্তি পরলেও তাঁকে ট্রোল করা হয়েছে। উর্ফি বুঝে গিয়েছেন, তিনি যাই করুন না কেন, নেটিজেনদের একাংশ তাঁকে ট্রোল করবেন। কিন্তু বর্তমানে খোলামেলা পোশাক পরা উর্ফি রক্ষণশীল মুসলমান পরিবারের সন্তান হওয়ায় একসময় নিজের পছন্দ মত পোশাক পরতে পারেননি। ওড়না ছাড়া বাইরে বেরোতে দেওয়া হত না। জিন্স পরায় ছিল নিষেধাজ্ঞা। তিনি বাধা পেতে পেতে এই স্থানে পৌঁছে গিয়েছেন। আজ আর কোনো বারণ শুনতে রাজি নন উর্ফি।

উর্ফি মনে করেন, তিনি মুসলমান বলে তাঁকে অতিরিক্ত ট্রোল করা হয়। একসময় নিজের ধর্মের কারণে মুম্বইয়ে বাড়ি ভাড়া পেতে অসুবিধা হয়েছিল তাঁর। ইন্ডাস্ট্রির প্রযোজকদের কাস্টিং কাউচের সম্মুখীন হয়েছেন উর্ফি। নিজের পারিবারিক অভিজ্ঞতার কারণে মুসলমান পুরুষকে বিয়ে করতে রাজি নন উর্ফি। কারণ তাঁর মেয়েদের উপর বিধিনিষেধ আরোপ করেন। অপরদিকে উর্ফির সঙ্গে কোনো ফ্যাশন ডিজাইনার কাজ করতে চাইছেন না। উর্ফির পোশাকের ডিজাইন দেখে তাঁদের মনে হয়েছে, উর্ফি তাঁদের সাথে কাজ করার যোগ্য নন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Urfi (@urfijavedofficial)