Hoop NewsHoop Trending

Weather Update: বাড়বে তাপমাত্রা, তুমুল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে

গত ১১ তারিখ থেকেই তিলোত্তমা সহ গোটা উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ দেখেছে মেঘলা আকাশ, শীতের লুকোচুরি ও ভারী বৃষ্টি। আবহাওয়া সূত্রে এমনটাই খবর ছিল যে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে হতে পারে বিক্ষিপ্ত বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি, এমনকি শিল পড়তে পারে। যেমনটা খবর ঠিক তেমনটি হয় শহর জুড়ে।

গত রাত্রে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় ভারী বৃষ্টি হয়, এমনকি শিলাবৃষ্টির টুপটাপ আওয়াজে পৌষের মানভঞ্জন হয়। এদিন, আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এদিন শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকার কথা ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। এরপরেও বৃষ্টির হাত থেকে নিস্তার নেই।

আরো পড়ুন -   মধ্যবিত্তদের জন্য সুখবর, আরও দাম কমলো সোনার, দেখে নিন আজকের সোনা রুপোর দাম

বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, মেদিনীপুর, কলকাতা সহ বহু জায়গায় গতকাল থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে, এবং এই বৃষ্টির রেশ চলতে থাকবে ১৪ তারিখ পর্যন্ত। সুতরাং এখনই বৃষ্টি কমার কোনো সম্ভবনা নেই।

আরো পড়ুন -   আবহাওয়ার ভোলবদল, দক্ষিনবঙ্গে বৃষ্টি নিয়ে বড় খবর দিল হাওয়া অফিস

১৩ ও ১৪ তারিখ থেকে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার রেশ কমতে থাকবে, ফলে আগামী ১৭ ই জানুয়ারি থেকে আকাশ পরিস্কার হবে, কাটবে মেঘলা ভাব। অর্থাৎ মকর সংক্রান্তির দিনেও থাকবে মেঘলা আকাশ এবং বৃষ্টির সম্ভবনা। আশা করা হচ্ছে, পশ্চিমী ঝঞ্ঝার দাপট কমার পর থেকে শীত ফিরবে নিজ ছন্দে। যদিও পৌষ মাঘের যেই শীত আগে শহরবাসী তথা গোটা বাংলা উপভোগ করত সেই শীতের মালুম এখন হবে না। হালকা শীতের পোশাকই যথেষ্ট তিলোত্তমার বুকের জন্য। এই প্রসঙ্গে এও জেনে রাখা ভালো, বর্তমান ঠান্ডা গরম পরিবেশে বাড়ছে সর্দি কাশি, এমনকি বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। তাই মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক এবং দূরত্ব বজিয়ে রেখে চলা আবশ্যক সকলের জন্য।

আরো পড়ুন -   আজ রাতেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা এই সকল এলাকায়, দেখুন একনজরে

Related Articles

Back to top button