Hoop NewsHoop Trending

Weather Update: আগামী কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ঝেঁপে নামবে বৃষ্টি, স্বস্তির খবর শোনাল হাওয়া অফিস

উত্তরবঙ্গের বাসিন্দাদের জন্য আবার স্বস্তির খবর। আগামী কয়েক ঘন্টার মধ্যেই ভাসতে চলেছে উত্তরবঙ্গের বেশকিছু জেলা। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলা জুড়ে। আর এদিকে দক্ষিণবঙ্গবাসী বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করতে করতে ক্লান্ত। দক্ষিণবঙ্গে নাকি বৃষ্টির সম্ভাবনা এই সপ্তাহের নেই। এমনই নিরাশার খবর শোনালো আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। কলকাতার আবহাওয়া বিশেষ কিছু পরিবর্তন হবেনা এই সপ্তাহে। বরং পাল্লা দিয়ে বাড়বে গরম। আদ্রতা জনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে বরাবরের মত।

উত্তরবঙ্গে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস থাকছে। কিন্তু দক্ষিণবঙ্গ বৃষ্টি থেকে একেবারেই বঞ্চিত। এমনকি একটি কালবৈশাখীর দেখা নেই। পশ্চিমবঙ্গে তাপপ্রবাহের পূর্বাভাস জারি না করলেও উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি জেলায় তাপপ্রবাহের আগাম সর্তকতা জারি করা হয়েছে । যখন বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করতে করতে অবসাদগ্রস্থ রাজ্যবাসী তখন আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর বলছে যে এপ্রিলের চলতি সপ্তাহেই তাপমাত্রার পারদ ছাড়াতে পারে ৪০ ডিগ্রি। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর রাজ্যের চার জেলা পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়াতে তাপপ্রবাহের সম্ভাবনা রয়েছে। অর্থাৎ এই জেলাগুলিতে তাপমাত্রা ছোঁবে ৪০ ডিগ্রি। তবে অন্যান্য জেলাগুলিতে এখনও তাপপ্রবাহের কোনও পূর্বাভাস নেই।

দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া অপরিবর্তিত থাকলেও আগামী কয়েক ঘন্টায় বদলে যাবে উত্তরবঙ্গের আবহাওয়া।আর কিছুক্ষণের মধ্যেই বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝেঁপে বৃষ্টি নামতে চলেছে উত্তরবঙ্গে। উত্তরের জেলা যেমন জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহার জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী রবিবার পর্যন্ত প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে অরুণাচলপ্রদেশ, অসম ও মেঘালয়ের মত উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি তে। এছাড়াও মনিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরা সহ উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতেও রয়েছে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। রাজস্থানের পশ্চিমে রয়েছে তাপপ্রবাহের সতর্কতা। তাপপ্রবাহ চলবে রাজস্থান, হরিয়ানা, দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশে। তাপপ্রবাহ চলবে মধ্যপ্রদেশ ও গুজরাটে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন যে দক্ষিণ পশ্চিম বাতাসে ভর করে বঙ্গোপসাগর থেকে জলীয়বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে। ওডিশা থেকে থেকে তামিলনাডু পর্যন্ত একটি অক্ষরেখা রয়েছে, যা ছত্রিশগড়, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, রায়লসীমার উপর দিয়ে গেছে। বিহার ও পঞ্জাবে অবস্থান করছে দুটি ঘূর্ণাবর্ত।তাই দেশের কিছু অংশে বৃষ্টিপাত হবে। অপর অংশে পাল্লা দিয়ে বাড়বে উষ্ণতার পারদ। এই বছর বর্ষা সময়ের থেকে দেরিতে প্রবেশ করতে পারে বলে অনেক আগেই জানিয়েছিলেন বিশিষ্ট আবহাওয়াবিদগণ।

আজ কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রার হতে পারে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা হবে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মত। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ থাকবে ৮৪ শতাংশ। তাই আদ্রতা জনিত অস্বস্তির চরমে থাকবে।