আবহাওয়ায় ঘটতে চলেছে ব্যাপক পরিবর্তন, কবে থেকে জাঁকিয়ে পড়ছে শীত জেনে নিন

নভেম্বর শেষ হতে আর মাত্র ৯ দিন বাকি। এবার বাড়িতে ট্রাঙ্কি খুলে ফেলুন। সব শোয়েটার আর জ্যাকেট আর কম্বোল তড়িঘড়ি রোদে দিয়ে দিন। হেমন্তের বিদায় নেওয়ার সময় চলে এসেছে। শীত পড়ার পালা। এবছর বাংলায় পড়ছে জাঁকিয়ে শীত। ইতিমধ্যে শনিবার সারাদিন সকাল থেকে আংশিক মেঘলা আকাশ ছিল। ছট পুজার সারাদিন বয় ঠান্ডা হাওয়া আর মাঝ রাত থেকে ভোর ৬টা অব্দি শহর জুড়ে হয়েছে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা বৃষ্টি। সকাল থেকেই সূর্যের দেখা নেই। সারা মেঘে ঢাকা ছিল শহর ও শহরতলি।

আর ২৪ ঘন্টা পেরোতে না পেরোতে রবিবার সকাল থেকেই পড়বে শীত। তারই পূর্বাভাস ছিল আবহাওয়া দপ্তর। সেই সঙ্গে শহর জুড়ে শীতের আগমন বার্তা দিচ্ছে শিরশিরে হাওয়া।রবিবার জম্বু-কাশ্মীরের ঢুকছে নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। এর প্রভাবে তাপমাত্রা নামার সম্ভাবনা উত্তর -পশ্চিম ভারতে।  নিম্নচাপের জেরে দক্ষিণ ভারতে বৃষ্টি

সপ্তাহ শেষ থেকেই রাজ্যে শীতের আমেজ। আগামী সপ্তাহ থেকে নামতে পারে পারদ। ৫ ডিগ্রি পর্যন্ত নামতে পারে তাপমাত্রা। কমবে পূবালি হাওয়ার প্রভাব।আর সাথে নতুন করে রাজ্যে প্রবেশ করতে পারে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। উত্তুরে হাওয়ার সাথে সাথে পারদ নামার সম্ভাবনা আছে।। আগামী সপ্তাহে ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস আবহাওয়ার পতন হতে পারে কলকাতায়। রবিবার থেকে তাপমাত্রা ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি কমবে। ২৩, ২৪,২৫,২৬ নভেম্বরের মধ্যে তাপমাত্রা কলকাতাতে ২০ এর নিচে থাকবে পারদ। জেলা গুলোতেও তাপমাত্রা ৩ থেকে ৪ ডিগ্রি কমবে। শনিবার তাপমাত্রা একটু বেশি থাকবে, মেঘলা আকাশ থাকবে ও আদ্রতা জনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে। ।

আবহাওয়া দফতর সূত্র অনুযায়ী ,শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ২ ডিগ্রি উপরে। নুন্যতম তাপমাত্রা  ২২.০ ডিগ্রী সেলসিয়াস।   স্বাভাবিকের ৩ ডিগ্রি উপরে রয়েছে। শহর ও শহরতলিতে, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক  ৯৮ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৫৯ শতাংশ। শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল  ৩১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ২ ডিগ্রি উপরে। উত্তরবঙ্গ সিকিম এবং দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু জেলায় ৪ ডিগ্রি পর্যন্ত পারদ নামার সম্ভাবনা আছে। এখন অপেক্ষা শীতের।